ঢাকা ১১:৫৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আমি ওয়াদা করেছি জাপানের মত রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করবো -সেলিম প্রধান

হাসান আহমেদ, নারায়ণগঞ্জ

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ঘোষণা দিলেন আলোচিত সেলিম প্রধান। সোমবার (১৮ মার্চ) দুপুরে ভিংরাবো এলাকায় একটি স্কুল পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

জাপান-বাংলাদেশ সিকিউরিটি প্রিন্টিং পেপার্সের চেয়ারম্যান সেলিম প্রধান বলেন, রূপগঞ্জে উপজেলা নির্বাচন করতে কেউ আসেনা ভয়ে। তাই আমি রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবো। গাজি সাহেবের ট্যাঙ্কি গাজি পরিবারের ট্যাঙ্কি ভরতে ভরতে আর জায়গা খালি নেই। বাবা করেছে এমপি নির্বাচন ছেলে আসছে উপজেলা নির্বাচন করতে, এরপরে ছেলের বউ আসবে পৌরসভার মেয়র নির্বাচন করতে। অথচ তারা রূপগঞ্জের কেউ না। তাদের বাড়ি রূপগঞ্জে না, তাদের জন্মস্থান রূপগঞ্জ না। তারা পুরো পরিবার মিলে এখানে এসেছে জমি দখল করতে আর টাঙ্কি ভরতে।

রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি নির্বাচনে নামতে বাধ্য হয়েছি। কারণ আমি ওয়াদা করেছি রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করে ছাড়বো।আমার পরিবারের গায়ে হাত দিবে, এটা হতে পারে না। আমি রূপগঞ্জবাসীর পাশে আছি। আর চাঁদাবাজি চলবে না, মাদক চলবে না। রূপগঞ্জবাসী আর ভুল করবে না। সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের আর ভোট দেবে না। যদি আমি নির্বাচনে জয় লাভ করি জাপানের মত রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করবো।

প্রশাসনকে অনুরোধ করে তিনি বলেন,সম্প্রতি গাউছিয়া মার্কেটে একটা ঘটনা ঘটেছে। হকার ইস্যুতে সেখানে ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের একটা দুর্ঘটনা ঘটেছিল। সেই দুর্ঘটনার জন্য প্রশাসনের লোকজন দু:খ প্রকাশ করেছেন। এরপরেও কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাসীরা পুলিশ ফাঁড়িতে ঢিল মেরেছে। প্রশাসনের ভাইদের অনুরোধ করবো, এসব সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হোক, যাতে করে সকল সন্ত্রাসীরা ভয় পায়। আর যদি তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হয়, তাহলে ওরা আরো প্রশ্রয় পেয়ে বেপরোয়া হয়ে যাবে।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও স্কুলের শিক্ষকদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমি তোমাদের সাথে আছি। তোমরা সবাই আমাদের পরিবার। আমি তোমাদের-ই একজন। আমাকে তোমরা বন্ধু মনে করবে। আমি তোমাদের বন্ধু হয়ে পাশে থাকতে চাই। রূপগঞ্জবাসীকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে মুক্ত না করার পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের তৈরি ফুল ও মালা আমার কাছে থাকবে।

এ সময় তিনি অনির্বাণ ডিজেবল চাইল্ড কেয়ার স্কুল অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টার নামের একটি স্কুলের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সহায়তার জন্য এক লাখ টাকা প্রদান করেন। এছাড়া তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১১:০৬:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০২৪
৩০ বার পড়া হয়েছে

আমি ওয়াদা করেছি জাপানের মত রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করবো -সেলিম প্রধান

আপডেট সময় ১১:০৬:০০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৮ মার্চ ২০২৪

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ঘোষণা দিলেন আলোচিত সেলিম প্রধান। সোমবার (১৮ মার্চ) দুপুরে ভিংরাবো এলাকায় একটি স্কুল পরিদর্শন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

জাপান-বাংলাদেশ সিকিউরিটি প্রিন্টিং পেপার্সের চেয়ারম্যান সেলিম প্রধান বলেন, রূপগঞ্জে উপজেলা নির্বাচন করতে কেউ আসেনা ভয়ে। তাই আমি রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবো। গাজি সাহেবের ট্যাঙ্কি গাজি পরিবারের ট্যাঙ্কি ভরতে ভরতে আর জায়গা খালি নেই। বাবা করেছে এমপি নির্বাচন ছেলে আসছে উপজেলা নির্বাচন করতে, এরপরে ছেলের বউ আসবে পৌরসভার মেয়র নির্বাচন করতে। অথচ তারা রূপগঞ্জের কেউ না। তাদের বাড়ি রূপগঞ্জে না, তাদের জন্মস্থান রূপগঞ্জ না। তারা পুরো পরিবার মিলে এখানে এসেছে জমি দখল করতে আর টাঙ্কি ভরতে।

রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি নির্বাচনে নামতে বাধ্য হয়েছি। কারণ আমি ওয়াদা করেছি রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করে ছাড়বো।আমার পরিবারের গায়ে হাত দিবে, এটা হতে পারে না। আমি রূপগঞ্জবাসীর পাশে আছি। আর চাঁদাবাজি চলবে না, মাদক চলবে না। রূপগঞ্জবাসী আর ভুল করবে না। সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের আর ভোট দেবে না। যদি আমি নির্বাচনে জয় লাভ করি জাপানের মত রূপগঞ্জকে পরিষ্কার করবো।

প্রশাসনকে অনুরোধ করে তিনি বলেন,সম্প্রতি গাউছিয়া মার্কেটে একটা ঘটনা ঘটেছে। হকার ইস্যুতে সেখানে ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের একটা দুর্ঘটনা ঘটেছিল। সেই দুর্ঘটনার জন্য প্রশাসনের লোকজন দু:খ প্রকাশ করেছেন। এরপরেও কিশোর গ্যাং ও সন্ত্রাসীরা পুলিশ ফাঁড়িতে ঢিল মেরেছে। প্রশাসনের ভাইদের অনুরোধ করবো, এসব সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনা হোক, যাতে করে সকল সন্ত্রাসীরা ভয় পায়। আর যদি তাদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ না করা হয়, তাহলে ওরা আরো প্রশ্রয় পেয়ে বেপরোয়া হয়ে যাবে।

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও স্কুলের শিক্ষকদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আমি তোমাদের সাথে আছি। তোমরা সবাই আমাদের পরিবার। আমি তোমাদের-ই একজন। আমাকে তোমরা বন্ধু মনে করবে। আমি তোমাদের বন্ধু হয়ে পাশে থাকতে চাই। রূপগঞ্জবাসীকে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে মুক্ত না করার পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের তৈরি ফুল ও মালা আমার কাছে থাকবে।

এ সময় তিনি অনির্বাণ ডিজেবল চাইল্ড কেয়ার স্কুল অ্যান্ড রিহ্যাবিলিটেশন সেন্টার নামের একটি স্কুলের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সহায়তার জন্য এক লাখ টাকা প্রদান করেন। এছাড়া তাদের পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ১১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।