ঢাকা ১২:০৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউজিসি ফেলোশিপ পেলেন জবির দুই নারী অধ্যাপক

আরাফাতুল হক চৌধুরী, জবি প্রতিনিধি
ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) দুই জন নারী অধ্যাপক। তাঁরা হলেন গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. শরাবান তোহুরা এবং রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. গুলশান আরা।
আজ বৃহঃস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) ফেলোশিপ প্রাপ্ত দুই শিক্ষিকা টেলিফোনে প্রতিবেদককে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে গত মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জরী কমিশনের  (ইউজিসি) চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপ মনোনয়ন বিষয়ক কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
এ শিক্ষাবর্ষে দেশের ১০ জন গবেষককে ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য নির্বাচিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। যার মধ্যে দুজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মনোনীত হয়েছেন। দেশে মানসম্মত গবেষণা পরিচালনার লক্ষ্যে এই পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপ প্রদান করা হচ্ছে বলে জানান ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর।
ইউজিসি ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষক জবি অধ্যাপক ড. শারাবান তহুরা বলেন, ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য আমাকে মনোনীত করায় আমি  আনন্দিত। কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে, ফেলোশিপের আবেদন করার সময় আমাকে সর্বাত্বক সহযোগিতা করার জন‍্য। এই ফেলোশিপ প্রাপ্তির মাধ্যমে আমি আমার গবেষণাকে আরও সমৃদ্ধ করতে পারব পাশাপাশি আমার গবেষণার মাধ্যমে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মানকে আরও যুগপোযগী করার ক্ষেত্রে অবদান রাখবো।
অধ্যাপক ড. গুলশান আরা বলেন, ফেলোশিপ পেয়ে ভালো লাগছে। আনন্দের বিষয় এই যে এ বছর ১০ ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষকের মধ্যে দুইজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। যা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সুনাম বয়ে আনলো।
ফেলোশিপপ্রাপ্ত ১০ জন গবেষকের মধ্যে অন্যান্যরা হলেন: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ নুরুল আমিন নূরী, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. শেখ মেহেদী হাসান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ফিরোজা আক্তার খানম, গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মো. তরিকুল ইসলাম, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. ফারহীন হাসান, প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ড. শহীদ মো. আসিফ ইকবাল, বরেন্দ্র ইউনিভার্সিটির ড. সুলতানা রাজিয়া এবং বৃন্দাবন সরকারি কলেজের ড. সুভাষ চন্দ্র দেব।
প্রসঙ্গত, ইউজিসি পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ ২০২৩-এর জন্য দেশের বিভিন্ন পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় (শুধু স্থায়ী ক্যাম্পাস) এবং সরকারি কলেজের ৩০ জন গবেষক আবেদন করেছিলেন। নীতিমালা অনুযায়ী আবেদনকারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, প্রকাশনা, গবেষণার শিরোনাম, সারসংক্ষেপ, সুপারভাইজারের সুপারিশের ভিত্তিতে আবেদনকারীদের মধ্য থেকে ১০ জন গবেষককে ইউজিসি এই পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করে। ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষকরা ফেলোশিপের ভাতা হিসেবে প্রতি মাসে ৫০ হাজার টাকা করে পাবেন। ১২ মাস এ অর্থ পাবেন মনোনীত গবেষকরা।
ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৪:৫৫:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪
১৫২ বার পড়া হয়েছে

ইউজিসি ফেলোশিপ পেলেন জবির দুই নারী অধ্যাপক

আপডেট সময় ০৪:৫৫:৪৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪
ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য নির্বাচিত হয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) দুই জন নারী অধ্যাপক। তাঁরা হলেন গণিত বিভাগের অধ্যাপক ড. শরাবান তোহুরা এবং রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. গুলশান আরা।
আজ বৃহঃস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) ফেলোশিপ প্রাপ্ত দুই শিক্ষিকা টেলিফোনে প্রতিবেদককে বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এর আগে গত মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জরী কমিশনের  (ইউজিসি) চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপ মনোনয়ন বিষয়ক কমিটির এক সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।
এ শিক্ষাবর্ষে দেশের ১০ জন গবেষককে ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য নির্বাচিত করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। যার মধ্যে দুজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মনোনীত হয়েছেন। দেশে মানসম্মত গবেষণা পরিচালনার লক্ষ্যে এই পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপ প্রদান করা হচ্ছে বলে জানান ইউজিসি চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আলমগীর।
ইউজিসি ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষক জবি অধ্যাপক ড. শারাবান তহুরা বলেন, ইউজিসি পোস্ট-ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য আমাকে মনোনীত করায় আমি  আনন্দিত। কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে, ফেলোশিপের আবেদন করার সময় আমাকে সর্বাত্বক সহযোগিতা করার জন‍্য। এই ফেলোশিপ প্রাপ্তির মাধ্যমে আমি আমার গবেষণাকে আরও সমৃদ্ধ করতে পারব পাশাপাশি আমার গবেষণার মাধ্যমে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার মানকে আরও যুগপোযগী করার ক্ষেত্রে অবদান রাখবো।
অধ্যাপক ড. গুলশান আরা বলেন, ফেলোশিপ পেয়ে ভালো লাগছে। আনন্দের বিষয় এই যে এ বছর ১০ ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষকের মধ্যে দুইজন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। যা আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সুনাম বয়ে আনলো।
ফেলোশিপপ্রাপ্ত ১০ জন গবেষকের মধ্যে অন্যান্যরা হলেন: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ নুরুল আমিন নূরী, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. শেখ মেহেদী হাসান, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ফিরোজা আক্তার খানম, গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মো. তরিকুল ইসলাম, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ড. ফারহীন হাসান, প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ড. শহীদ মো. আসিফ ইকবাল, বরেন্দ্র ইউনিভার্সিটির ড. সুলতানা রাজিয়া এবং বৃন্দাবন সরকারি কলেজের ড. সুভাষ চন্দ্র দেব।
প্রসঙ্গত, ইউজিসি পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপ ২০২৩-এর জন্য দেশের বিভিন্ন পাবলিক, প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয় (শুধু স্থায়ী ক্যাম্পাস) এবং সরকারি কলেজের ৩০ জন গবেষক আবেদন করেছিলেন। নীতিমালা অনুযায়ী আবেদনকারীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, প্রকাশনা, গবেষণার শিরোনাম, সারসংক্ষেপ, সুপারভাইজারের সুপারিশের ভিত্তিতে আবেদনকারীদের মধ্য থেকে ১০ জন গবেষককে ইউজিসি এই পোস্ট ডক্টরাল ফেলোশিপের জন্য চূড়ান্তভাবে নির্বাচন করে। ফেলোশিপ প্রাপ্ত গবেষকরা ফেলোশিপের ভাতা হিসেবে প্রতি মাসে ৫০ হাজার টাকা করে পাবেন। ১২ মাস এ অর্থ পাবেন মনোনীত গবেষকরা।