ঢাকা ০৪:৩৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইবিতে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক নারী উদ্ধার

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়েরর (ইবি) ঝালচত্বর থেকে শীতের রাত্রে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক মহিলাকে উদ্ধার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারী) দিবাগত রাত ১২ টার দিকে অজ্ঞাতনামা ওই মহিলাকে ঝালচত্বরে পড়ে থাকতে দেখে এম্বুলেন্স ডেকে উদ্ধার করে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যান শিক্ষার্থীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী নুর ই আলম জানান, আমরা রাতের বেলায় কয়েকজন এমনি হাঁটতে বেরিয়েছিলাম। একপর্যায়ে ঝালচত্বরের পাশে এনাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পাই। তৎক্ষণাত আমরা অ্যাম্বুলেন্স ডেকে কয়েকজন মিলে তাকে মেডিকেলে নিয়ে যাই। পরে ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে সহকারী প্রক্টর মো: ইয়ামিন মাসুম বলেন, ক্যাম্পাসের ভেতরে অচেতন অবস্থায় এক নারীকে পাওয়া গেছে বলে শুনেছি। শিক্ষার্থীরা মেডিকেলে নিয়ে তার প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে। এখানে যদি পর্যাপ্ত চিকিৎসা পাওয়া না যায় তবে উক্ত নারীকে কুষ্টিয়া পাঠিয়ে দিতে বলেছি।

অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, ওই নারীর রক্তচাপ খুব ই কম। পাশাপাশি তীব্র ঠান্ডায় কুলাতে না পেরে অচেতন হয়ে গিয়েছেন। প্রাথমিকভাবে তাকে একটি ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে। তবে, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১২:৪৫:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
২৩৪ বার পড়া হয়েছে

ইবিতে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক নারী উদ্ধার

আপডেট সময় ১২:৪৫:৪২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়েরর (ইবি) ঝালচত্বর থেকে শীতের রাত্রে অচেতন অবস্থায় অজ্ঞাতনামা এক মহিলাকে উদ্ধার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। তার বয়স আনুমানিক ৪০ বছর।

সোমবার (৫ ফেব্রুয়ারী) দিবাগত রাত ১২ টার দিকে অজ্ঞাতনামা ওই মহিলাকে ঝালচত্বরে পড়ে থাকতে দেখে এম্বুলেন্স ডেকে উদ্ধার করে চিকিৎসা কেন্দ্রে নিয়ে যান শিক্ষার্থীরা।

প্রত্যক্ষদর্শী নুর ই আলম জানান, আমরা রাতের বেলায় কয়েকজন এমনি হাঁটতে বেরিয়েছিলাম। একপর্যায়ে ঝালচত্বরের পাশে এনাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখতে পাই। তৎক্ষণাত আমরা অ্যাম্বুলেন্স ডেকে কয়েকজন মিলে তাকে মেডিকেলে নিয়ে যাই। পরে ডাক্তার তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে সহকারী প্রক্টর মো: ইয়ামিন মাসুম বলেন, ক্যাম্পাসের ভেতরে অচেতন অবস্থায় এক নারীকে পাওয়া গেছে বলে শুনেছি। শিক্ষার্থীরা মেডিকেলে নিয়ে তার প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছে। এখানে যদি পর্যাপ্ত চিকিৎসা পাওয়া না যায় তবে উক্ত নারীকে কুষ্টিয়া পাঠিয়ে দিতে বলেছি।

অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, ওই নারীর রক্তচাপ খুব ই কম। পাশাপাশি তীব্র ঠান্ডায় কুলাতে না পেরে অচেতন হয়ে গিয়েছেন। প্রাথমিকভাবে তাকে একটি ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে। তবে, উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।