ঢাকা ০৫:২১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইবিতে নতুন দুই সহকারী প্রক্টর

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

আগামী এক বছরের জন্য ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নতুন দুইজন শিক্ষককে সহকারী প্রক্টর হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও একজন সহকারী প্রক্টরকে মেয়ার শেষ হওয়ায় পুনঃনিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এই তথ্য জানানো হয়।

নতুন নিয়োগ পাওয়া সহকারী প্রক্টরবৃন্দ হচ্ছেন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ শরিফুল ইসলাম এবং অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ হুমায়ুন কবীর। এছাড়া আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসাইনকে পুনঃনিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

অফিস আদেশে বলা হয়, সহকারী প্রক্টর হিসেবে আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসাইনের মেয়াদ ০৭ ফেব্রুয়ারী তারিখে শেষ হওয়ায় ০৮ তারিখ হতে পুন: আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

এছাড়া, ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোঃ শরিফুল ইসলামের মেয়াদ ০৭ তারিখে শেষ হওয়ায় (২য় বার) তদস্থলে ০৮ তারিখ হতে একই বিভাগের প্রভাষক মোঃ নাসির মিয়া-কে এবং হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোঃ শাহাবুব আলমের মেয়াদ শেষ হওয়ায় তদস্থলে ০৮ ফেব্রুয়ারী তারিখ হতে অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ হুমায়ুন কবীরকে পরবর্তী এক বছরের জন্য সহকারী প্রক্টর হিসেবে উপাচার্য নিয়োগদান করেছেন।

ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রভাষক নাসির মিয়া বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ প্রশাসন আমাকে সহকারী প্রক্টর হিসেবে নিযুক্ত করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিসি এবং প্রক্টরিয়াল বডির রুলস রেগুলেশন অনুযায়ী আমার মেধা, বুদ্ধি ও শ্রম দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ও সংযুক্ত দায়িত্ব পালনে পালনের চেষ্টা করবো।

অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হুয়ায়ুন কবীর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাকে সহকারী প্রক্টর হিসেবে যোগ্য মনে করেছে এবং নিয়োগ পেয়েছি। এতে আমি প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি চেষ্টা করবো আমার সর্বোচ্চ টা দিয়ে আমার দায়িত্ব পালন করার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখার।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৬:৩৮:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
২৫৮ বার পড়া হয়েছে

ইবিতে নতুন দুই সহকারী প্রক্টর

আপডেট সময় ০৬:৩৮:১৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আগামী এক বছরের জন্য ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নতুন দুইজন শিক্ষককে সহকারী প্রক্টর হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও একজন সহকারী প্রক্টরকে মেয়ার শেষ হওয়ায় পুনঃনিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এইচ এম আলী হাসান স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এই তথ্য জানানো হয়।

নতুন নিয়োগ পাওয়া সহকারী প্রক্টরবৃন্দ হচ্ছেন ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ শরিফুল ইসলাম এবং অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ হুমায়ুন কবীর। এছাড়া আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসাইনকে পুনঃনিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

অফিস আদেশে বলা হয়, সহকারী প্রক্টর হিসেবে আল ফিকহ এন্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসাইনের মেয়াদ ০৭ ফেব্রুয়ারী তারিখে শেষ হওয়ায় ০৮ তারিখ হতে পুন: আদেশ না দেওয়া পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

এছাড়া, ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোঃ শরিফুল ইসলামের মেয়াদ ০৭ তারিখে শেষ হওয়ায় (২য় বার) তদস্থলে ০৮ তারিখ হতে একই বিভাগের প্রভাষক মোঃ নাসির মিয়া-কে এবং হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোঃ শাহাবুব আলমের মেয়াদ শেষ হওয়ায় তদস্থলে ০৮ ফেব্রুয়ারী তারিখ হতে অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোঃ হুমায়ুন কবীরকে পরবর্তী এক বছরের জন্য সহকারী প্রক্টর হিসেবে উপাচার্য নিয়োগদান করেছেন।

ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রভাষক নাসির মিয়া বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ প্রশাসন আমাকে সহকারী প্রক্টর হিসেবে নিযুক্ত করায় কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। আমি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিসি এবং প্রক্টরিয়াল বডির রুলস রেগুলেশন অনুযায়ী আমার মেধা, বুদ্ধি ও শ্রম দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা ও সংযুক্ত দায়িত্ব পালনে পালনের চেষ্টা করবো।

অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হুয়ায়ুন কবীর বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন আমাকে সহকারী প্রক্টর হিসেবে যোগ্য মনে করেছে এবং নিয়োগ পেয়েছি। এতে আমি প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমি চেষ্টা করবো আমার সর্বোচ্চ টা দিয়ে আমার দায়িত্ব পালন করার এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখার।