ঢাকা ০৭:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইবিতে নীলফামারী জেলা সমিতির নবীনবরণ ও প্রবীণ বিদায়

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নীলফামারী জেলা থেকে আগত শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘নীলফামারী জেলা সমিতির নবীনবরণ ও বিদায়ী সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২ টায় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনের ১১৬নং কক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবীন শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট দিয়ে বরণ এবং বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট দিয়ে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা সমিতির সভাপতি আল কোরআন অ্যান্ড ইসলামিক স্ট্যাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. শেখ এ.বি.এম জাকির হোসেন, উপদেষ্টা মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান মো: সাদিকুল আজাদ। এছাড়াও জেলা সমিতির কমিটিতে দায়িত্বরত সকল সদস্য এবং জেলা থেকে আগত প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সঞ্চালনায় ছিলেন আল ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্ট্যাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মিশুক শাহরিয়ার এবং ল অ্যান্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের আজমেরী রহমান।

এসময় উপদেষ্টা অধ্যাপক মো: সাদিকুল আজাদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় একটি মুক্তচিন্তার স্থান। এখানে এসে অনেকেই দিকভ্রস্ট হয়ে পরে। কিন্তু তা হওয়া যাবেনা। আমাদের প্রধান লক্ষ্য হবে পড়াশোনা করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা। এরপর অন্যান্য সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে নিজেদের সমৃদ্ধ করা। এছাড়াও তিনি সকল প্রয়োজনে তাকে পাশে পাওয়ার প্রতি আশ্বস্ত করেছেন।

সভাপতি অধ্যাপক ড. শেখ এ.বি.এম জাকির হোসেন বলেন, এতোগুলো মানুষকে একসাথে দেখে আমি পুলকিত। ভবিষ্যতে এমন প্রোগ্রাম বারবার আয়োজন করা হোক এবং সকলের মধ্যে এই ভ্রাতৃত্ববোধ এবং সম্প্রীতি বজায় থাকুক এবং তিনি সকলকে দেখে অভিভুত হয়ে নীলফামারীর জেলা সমিতির সকলকে নিয়ে একটি শিক্ষাসফরের আয়োজন করবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

সর্বশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান আকর্ষণ ছিলো নীলফামারীর আঞ্চলিক খাবার নিয়ে আঞ্চলিক ভাষায় ‘তরকারী হিসেবে মুই সেরা’ শীর্ষক রম্য বিতর্ক এবং বিখ্যাত পালা রহিম রুব্বান।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৯:৫৭:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৪১ বার পড়া হয়েছে

ইবিতে নীলফামারী জেলা সমিতির নবীনবরণ ও প্রবীণ বিদায়

আপডেট সময় ০৯:৫৭:০৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নীলফামারী জেলা থেকে আগত শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘নীলফামারী জেলা সমিতির নবীনবরণ ও বিদায়ী সংবর্ধনা’ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুর ২ টায় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনের ১১৬নং কক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে নবীন শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট দিয়ে বরণ এবং বিদায়ী শিক্ষার্থীদের ক্রেস্ট দিয়ে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী জেলা সমিতির সভাপতি আল কোরআন অ্যান্ড ইসলামিক স্ট্যাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. শেখ এ.বি.এম জাকির হোসেন, উপদেষ্টা মার্কেটিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান মো: সাদিকুল আজাদ। এছাড়াও জেলা সমিতির কমিটিতে দায়িত্বরত সকল সদস্য এবং জেলা থেকে আগত প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সঞ্চালনায় ছিলেন আল ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্ট্যাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী মিশুক শাহরিয়ার এবং ল অ্যান্ড ল্যান্ড ম্যানেজমেন্ট বিভাগের আজমেরী রহমান।

এসময় উপদেষ্টা অধ্যাপক মো: সাদিকুল আজাদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় একটি মুক্তচিন্তার স্থান। এখানে এসে অনেকেই দিকভ্রস্ট হয়ে পরে। কিন্তু তা হওয়া যাবেনা। আমাদের প্রধান লক্ষ্য হবে পড়াশোনা করে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা। এরপর অন্যান্য সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে নিজেদের সমৃদ্ধ করা। এছাড়াও তিনি সকল প্রয়োজনে তাকে পাশে পাওয়ার প্রতি আশ্বস্ত করেছেন।

সভাপতি অধ্যাপক ড. শেখ এ.বি.এম জাকির হোসেন বলেন, এতোগুলো মানুষকে একসাথে দেখে আমি পুলকিত। ভবিষ্যতে এমন প্রোগ্রাম বারবার আয়োজন করা হোক এবং সকলের মধ্যে এই ভ্রাতৃত্ববোধ এবং সম্প্রীতি বজায় থাকুক এবং তিনি সকলকে দেখে অভিভুত হয়ে নীলফামারীর জেলা সমিতির সকলকে নিয়ে একটি শিক্ষাসফরের আয়োজন করবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

সর্বশেষ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান আকর্ষণ ছিলো নীলফামারীর আঞ্চলিক খাবার নিয়ে আঞ্চলিক ভাষায় ‘তরকারী হিসেবে মুই সেরা’ শীর্ষক রম্য বিতর্ক এবং বিখ্যাত পালা রহিম রুব্বান।