ঢাকা ১১:৫৬ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইবিতে ভ্যানচালকদের আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে চলাচলকারী ভ্যান চালকদের আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। এসময় প্রায় ৫০ জন ভ্যানচালকের মাঝে আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম বিতরণ করা হয়।

বুধবার (২৪ জানুয়ারী) ক্যাম্পাসের ফুটবল মাঠ চত্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসের উদ্যোগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান, টিএসসিসির পরিচালক অধ্যাপক ড. বাকী বিল্লাহ বিকুল, সহকারী প্রক্টর মোঃ শাহাবুব আলম, প্রভাষক মিঠুন বৈরাগী, প্রভাষক মোঃ ইয়ামিন মাসুম, সহকারী অধ্যাপক শরিফুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক কাজী মওদুদ আহমেদ এবং শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত সহ অর্ধশত ভ্যানচালক।

মাসুদ রানা নামক এক ভ্যানচালক বলেন, প্রশাসন আমাদের একরকম আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান করায় খুবই আনন্দিত। আমাদের এখন মনে হচ্ছে যে আমরাও ক্যাম্পাসের সেবাদানকারী কর্মচারী। বক্তব্যে এক স্যার অনুরোধ করল যে সবাইকে স্যার সম্বোধন করতে – এটাও আমরা সাদরে গ্রহণ করলাম। আমরা সম্মান দিলে তো ওনারা ফিডব্যাক হিসেবে সম্মান-স্নেহ দিবেন। এটাও আশা করি যে ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা আমাদের সাথে ভালো আচরণ করবে এবং আমরাও তাদেরকে সেবা দিয়ে যাব।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন , প্রক্টরিয়াল বডিকে এরকম উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ব্যতিক্রম ধর্মী এই আইডিয়াটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ক্যাম্পাসে চলার পথে ভ্যানচালককে চেনার সুযোগ, কে বা কারা ঘটনা ঘটালো এবং অযাচিতভাবে অঘটন ঘটালে সহজে শনাক্ত করা যাবে। এটি আধুনিকায়নের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যাওয়া। সবাই উপস্থিত হয়ে অনুষ্ঠানকে আড়ম্বরপূর্ণ করেছেন।

প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, আজকে আমরা প্রাথমিকভাবে ৫০ জনকে আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান করছি। পর্যায়ক্রমে আরো ৫০ জনকে আমরা এই নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসবো। ভ্যান চালকদের দ্বারা অপ্রত্যাশিত ঘটনা যেন না ঘটে, তারা যেন কোন মাদকদ্রব্য যেমন: গাজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা ইত্যাদি ক্যাম্পাসে নিয়ে আসতে না পারে সেই শৃঙ্খলা রক্ষায় আমাদের এই উদ্যোগ।

তিনি আরো বলেন, আমি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের প্রভোস্ট ছিলাম তখন প্রথম শিক্ষার্থীদের মাঝে স্মার্ট কার্ড প্রদান, বঙ্গবন্ধু লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠাসহ অন্যান্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজের সূচনা করে দিয়েছি তার ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যাচ্ছে। দিনশেষে আমিও একজন ইবিয়ান। আমার উদ্দেশ্যই থাকে কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১২:৫২:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
৯২ বার পড়া হয়েছে

ইবিতে ভ্যানচালকদের আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান

আপডেট সময় ১২:৫২:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪

 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে চলাচলকারী ভ্যান চালকদের আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়েছে। এসময় প্রায় ৫০ জন ভ্যানচালকের মাঝে আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম বিতরণ করা হয়।

বুধবার (২৪ জানুয়ারী) ক্যাম্পাসের ফুটবল মাঠ চত্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসের উদ্যোগে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এই আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়।

সহকারী প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোঃ আমজাদ হোসেনের সঞ্চালনায় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদের সভাপতিত্বে এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান, টিএসসিসির পরিচালক অধ্যাপক ড. বাকী বিল্লাহ বিকুল, সহকারী প্রক্টর মোঃ শাহাবুব আলম, প্রভাষক মিঠুন বৈরাগী, প্রভাষক মোঃ ইয়ামিন মাসুম, সহকারী অধ্যাপক শরিফুল ইসলাম, সহকারী অধ্যাপক কাজী মওদুদ আহমেদ এবং শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত সহ অর্ধশত ভ্যানচালক।

মাসুদ রানা নামক এক ভ্যানচালক বলেন, প্রশাসন আমাদের একরকম আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান করায় খুবই আনন্দিত। আমাদের এখন মনে হচ্ছে যে আমরাও ক্যাম্পাসের সেবাদানকারী কর্মচারী। বক্তব্যে এক স্যার অনুরোধ করল যে সবাইকে স্যার সম্বোধন করতে – এটাও আমরা সাদরে গ্রহণ করলাম। আমরা সম্মান দিলে তো ওনারা ফিডব্যাক হিসেবে সম্মান-স্নেহ দিবেন। এটাও আশা করি যে ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা আমাদের সাথে ভালো আচরণ করবে এবং আমরাও তাদেরকে সেবা দিয়ে যাব।

শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন , প্রক্টরিয়াল বডিকে এরকম উদ্যোগ নেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ব্যতিক্রম ধর্মী এই আইডিয়াটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে। ক্যাম্পাসে চলার পথে ভ্যানচালককে চেনার সুযোগ, কে বা কারা ঘটনা ঘটালো এবং অযাচিতভাবে অঘটন ঘটালে সহজে শনাক্ত করা যাবে। এটি আধুনিকায়নের পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যাওয়া। সবাই উপস্থিত হয়ে অনুষ্ঠানকে আড়ম্বরপূর্ণ করেছেন।

প্রক্টর অধ্যাপক ড. শাহাদৎ হোসেন আজাদ বলেন, আজকে আমরা প্রাথমিকভাবে ৫০ জনকে আইডি কার্ড ও ইউনিফর্ম প্রদান করছি। পর্যায়ক্রমে আরো ৫০ জনকে আমরা এই নিবন্ধনের আওতায় নিয়ে আসবো। ভ্যান চালকদের দ্বারা অপ্রত্যাশিত ঘটনা যেন না ঘটে, তারা যেন কোন মাদকদ্রব্য যেমন: গাজা, ফেনসিডিল, ইয়াবা ইত্যাদি ক্যাম্পাসে নিয়ে আসতে না পারে সেই শৃঙ্খলা রক্ষায় আমাদের এই উদ্যোগ।

তিনি আরো বলেন, আমি যখন বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হলের প্রভোস্ট ছিলাম তখন প্রথম শিক্ষার্থীদের মাঝে স্মার্ট কার্ড প্রদান, বঙ্গবন্ধু লাইব্রেরী প্রতিষ্ঠাসহ অন্যান্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ কাজের সূচনা করে দিয়েছি তার ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয় এগিয়ে যাচ্ছে। দিনশেষে আমিও একজন ইবিয়ান। আমার উদ্দেশ্যই থাকে কিভাবে বিশ্ববিদ্যালয়কে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।