ঢাকা ০৬:০২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কাঠের নৌকায় ২৫০ রোহিঙ্গা ইন্দোনেশিয়ায়

নিজস্ব সংবাদ

কাঠের নৌকায় সাগর পাড়ি দিয়ে প্রায় ২৫০ রোহিঙ্গা ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছেছেন। বৃহস্পতিবার তারা ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম উপকূলে পৌছান। এ নিয়ে চলতি সপ্তাহে ৬০০ রোহিঙ্গা সেখানে গিয়েছেন বলে জানান স্থানীয় কর্মকর্তারা। ফ্রান্স ২৪।

রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে প্রচণ্ডভাবে নির্যাতিত। তাদের বেশিরভাগই মুসলিম। প্রতি বছর হাজার হাজার রোহিঙ্গা তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দীর্ঘ ও ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রযাত্রা করেন। অনেক সময় দুর্বল নৌকায় করে তারা মালয়েশিয়া বা ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছানোর চেষ্টা করেন।

ইন্দোনেশিয়ার আচেহ উপকূলে পৌঁছানো রোহিঙ্গাদের মধ্যে পুরুষ, নারী, শিশু ও নবজাতকরা রয়েছে। ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা তাদের নৌকা থেকে সৈকতে নামতে প্রথমে বাধা দেন। এ সময় ওই রোহিঙ্গারা নৌকা থেকে নামতে অনুনয়-বিনয় করেন।

মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। জাতিসংঘের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এই সংখ্যা ৯ লাখ ৬০ হাজার। তাদের বেশিরভাগই ২০১৭ সালে সেখান থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন।

মঙ্গলবার আরেকটি নৌকায় ১৪৭ রোহিঙ্গা আচেহ প্রদেশের পিদি অঞ্চলে যান বলে স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা এক বিবৃতিতে জানান। আগের দিন একই অঞ্চলে ১৯৬ জনের একটি দল সেখানে পৌঁছায় বলে স্থানীয় নৌ কমান্ডার আন্দি সুসান্ত জানান।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইন্দোনেশিয়ায় যাওয়া রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করছে। ইন্দোনেশিয়ায় সংস্থাটির মুখপাত্র মিত্রা সালিমা সুরিয়োনো এমনটি জানান।

ইউএনএইচসিআরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ২০২২ সালে দুই হাজারের বেশি রোহিঙ্গা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে ঝুঁকি নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন বলে ধরে নেওয়া হয়।

সংস্থাটির অনুমান, বিপজ্জনক সমুদ্রযাত্রার চেষ্টা করার সময় গত বছর প্রায় ২০০ রোহিঙ্গা মারা গেছেন বা নিখোঁজ হয়েছেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৮:৩৫:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০২৩
২৫০ বার পড়া হয়েছে

কাঠের নৌকায় ২৫০ রোহিঙ্গা ইন্দোনেশিয়ায়

আপডেট সময় ০৮:৩৫:৫২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ নভেম্বর ২০২৩

কাঠের নৌকায় সাগর পাড়ি দিয়ে প্রায় ২৫০ রোহিঙ্গা ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছেছেন। বৃহস্পতিবার তারা ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম উপকূলে পৌছান। এ নিয়ে চলতি সপ্তাহে ৬০০ রোহিঙ্গা সেখানে গিয়েছেন বলে জানান স্থানীয় কর্মকর্তারা। ফ্রান্স ২৪।

রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে প্রচণ্ডভাবে নির্যাতিত। তাদের বেশিরভাগই মুসলিম। প্রতি বছর হাজার হাজার রোহিঙ্গা তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দীর্ঘ ও ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রযাত্রা করেন। অনেক সময় দুর্বল নৌকায় করে তারা মালয়েশিয়া বা ইন্দোনেশিয়ায় পৌঁছানোর চেষ্টা করেন।

ইন্দোনেশিয়ার আচেহ উপকূলে পৌঁছানো রোহিঙ্গাদের মধ্যে পুরুষ, নারী, শিশু ও নবজাতকরা রয়েছে। ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা তাদের নৌকা থেকে সৈকতে নামতে প্রথমে বাধা দেন। এ সময় ওই রোহিঙ্গারা নৌকা থেকে নামতে অনুনয়-বিনয় করেন।

মিয়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। জাতিসংঘের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী এই সংখ্যা ৯ লাখ ৬০ হাজার। তাদের বেশিরভাগই ২০১৭ সালে সেখান থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন।

মঙ্গলবার আরেকটি নৌকায় ১৪৭ রোহিঙ্গা আচেহ প্রদেশের পিদি অঞ্চলে যান বলে স্থানীয় সরকারি কর্মকর্তা এক বিবৃতিতে জানান। আগের দিন একই অঞ্চলে ১৯৬ জনের একটি দল সেখানে পৌঁছায় বলে স্থানীয় নৌ কমান্ডার আন্দি সুসান্ত জানান।

জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থা ইন্দোনেশিয়ায় যাওয়া রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সমন্বয় করছে। ইন্দোনেশিয়ায় সংস্থাটির মুখপাত্র মিত্রা সালিমা সুরিয়োনো এমনটি জানান।

ইউএনএইচসিআরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী ২০২২ সালে দুই হাজারের বেশি রোহিঙ্গা দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশগুলোতে ঝুঁকি নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেছেন বলে ধরে নেওয়া হয়।

সংস্থাটির অনুমান, বিপজ্জনক সমুদ্রযাত্রার চেষ্টা করার সময় গত বছর প্রায় ২০০ রোহিঙ্গা মারা গেছেন বা নিখোঁজ হয়েছেন।