ঢাকা ০৭:৫১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কোন কারনে কারো সঙ্গে আমরা যুদ্ধে জড়াতে চাই না : ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব সংবাদ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মিয়ানমারে চলমান সংঘাত তাঁদের অভ্যন্তরীণ। আমাদের সঙ্গে তাঁদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কোনো বিরোধ নেই। বাংলাদেশের সঙ্গে যদি মিয়ানমারের দ্বন্দ্বের কোনো বিষয় আসে, তাহলে জাতিসংঘের দৃষ্টি আকর্ষণ করব। আন্তর্জাতিক ফোরাম আছে।

জাতিসংঘ যেহেতু আছে তাঁদেরও একটা ভূমিকা থাকবে। আমরা কারো সঙ্গে কোন কারনে যুদ্ধে জড়াতে চাই না। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

কাদের বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা আন্তর্জাতিকভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে। যেকোনো সমস্যা আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে আমাদের সিদ্ধান্ত এবং সমর্থন আছে। মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের সীমান্ত সমস্যা নিয়ে কিছু থাকলে, তাঁদের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে জানানোর পাশাপাশি বিষয়টি জাতিসংঘের নজরে আনবে বাংলাদেশ।সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার সীমান্ত যা ঘটছে, তা তাঁদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাঁদের অভ্যন্তরীণ কনফ্লিক্ট সীমান্ত পর্যন্ত গড়াচ্ছে।

তাঁদের ছোড়া গোলা, মর্টার সেল আঘাত হানছে আমাদের এখানে। আমাদের দুজন নাগরিক মারা গেছে। বাংলাদেশের নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানো হতে পারে। সিদ্ধান্ত হলে জানানো হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৫:১৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৩৩ বার পড়া হয়েছে

কোন কারনে কারো সঙ্গে আমরা যুদ্ধে জড়াতে চাই না : ওবায়দুল কাদের

আপডেট সময় ০৫:১৯:৩৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মিয়ানমারে চলমান সংঘাত তাঁদের অভ্যন্তরীণ। আমাদের সঙ্গে তাঁদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কোনো বিরোধ নেই। বাংলাদেশের সঙ্গে যদি মিয়ানমারের দ্বন্দ্বের কোনো বিষয় আসে, তাহলে জাতিসংঘের দৃষ্টি আকর্ষণ করব। আন্তর্জাতিক ফোরাম আছে।

জাতিসংঘ যেহেতু আছে তাঁদেরও একটা ভূমিকা থাকবে। আমরা কারো সঙ্গে কোন কারনে যুদ্ধে জড়াতে চাই না। মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন।

কাদের বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা আন্তর্জাতিকভাবে সমাধানের চেষ্টা চলছে। যেকোনো সমস্যা আলাপ আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে আমাদের সিদ্ধান্ত এবং সমর্থন আছে। মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের সীমান্ত সমস্যা নিয়ে কিছু থাকলে, তাঁদের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে জানানোর পাশাপাশি বিষয়টি জাতিসংঘের নজরে আনবে বাংলাদেশ।সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমার সীমান্ত যা ঘটছে, তা তাঁদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। তাঁদের অভ্যন্তরীণ কনফ্লিক্ট সীমান্ত পর্যন্ত গড়াচ্ছে।

তাঁদের ছোড়া গোলা, মর্টার সেল আঘাত হানছে আমাদের এখানে। আমাদের দুজন নাগরিক মারা গেছে। বাংলাদেশের নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠানো হতে পারে। সিদ্ধান্ত হলে জানানো হবে।