ঢাকা ০৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গণস্বাস্থ্য মেডিকেল কলেজকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে আদালত

নিজস্ব সংবাদ

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রতিষ্ঠিত ‘গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজে’ ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ১১০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।  অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করায় ওই মেডিকেলটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। জরিমানার টাকা খুলনা গণস্বাস্থ্য হাসপাতাল ও কিউনি ফাউন্ডেশনকে দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) আদেশ দেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ।

আদালতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঢাবির পক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহম্মদ মোরশেদ। অপরপক্ষে ছিলেন আইনজীবী আহসানুল করীম, শাহ মঞ্জুরুল হক ও নাহিদ সুলতানা যুথী।

এর আগে ২০২২ সালের ২৮ জুন হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে ৬০ জন পর্যন্ত শিক্ষার্থী ভর্তির সংক্রান্ত ঢাবির দেওয়া দুটি চিঠি অবৈধ বলে রায় দেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টে রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল ইসলাম।  ওইদিন ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ‘গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজে ২০০৩ সালে ৮০ জন ছাত্র ভর্তির অনুমতি পায়। পরে ২০১০ সালে তা উন্নীত করে ১১০ জন পায়। পরবর্তীতে ঢাবির অধিভুক্ত হওয়ার পরে তারা চিঠি দিয়ে বলে ৫০ জনের বেশি ভর্তি করতে পারবেন না।

এ বিষয়ে আপিলের ভিত্তিতে ১০ জন বাড়িয়েছিল। ওই দুটি চিঠির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টে রিট করেন গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মুহিব উল্লাহ খন্দকার। হাইকোর্টের রায়ের ফলে ওই মেডিকেল কলেজে ১১০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা যাবে বলে জানান আইনজীবী ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলাম।  এর বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করে ঢাবি ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০২:০১:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৭৩ বার পড়া হয়েছে

গণস্বাস্থ্য মেডিকেল কলেজকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে আদালত

আপডেট সময় ০২:০১:৩৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর প্রতিষ্ঠিত ‘গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজে’ ২০২১-২০২২ শিক্ষাবর্ষে ১১০ শিক্ষার্থীর ভর্তি বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।  অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করায় ওই মেডিকেলটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছেন আদালত। জরিমানার টাকা খুলনা গণস্বাস্থ্য হাসপাতাল ও কিউনি ফাউন্ডেশনকে দিতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) লিভ টু আপিল নিষ্পত্তি করে মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) আদেশ দেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে আপিল বেঞ্চ।

আদালতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ঢাবির পক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহম্মদ মোরশেদ। অপরপক্ষে ছিলেন আইনজীবী আহসানুল করীম, শাহ মঞ্জুরুল হক ও নাহিদ সুলতানা যুথী।

এর আগে ২০২২ সালের ২৮ জুন হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে ৬০ জন পর্যন্ত শিক্ষার্থী ভর্তির সংক্রান্ত ঢাবির দেওয়া দুটি চিঠি অবৈধ বলে রায় দেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টে রিট আবেদনের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার একেএম ফখরুল ইসলাম।  ওইদিন ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, ‘গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজে ২০০৩ সালে ৮০ জন ছাত্র ভর্তির অনুমতি পায়। পরে ২০১০ সালে তা উন্নীত করে ১১০ জন পায়। পরবর্তীতে ঢাবির অধিভুক্ত হওয়ার পরে তারা চিঠি দিয়ে বলে ৫০ জনের বেশি ভর্তি করতে পারবেন না।

এ বিষয়ে আপিলের ভিত্তিতে ১০ জন বাড়িয়েছিল। ওই দুটি চিঠির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টে রিট করেন গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক মেডিকেল কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ডা. মুহিব উল্লাহ খন্দকার। হাইকোর্টের রায়ের ফলে ওই মেডিকেল কলেজে ১১০ শিক্ষার্থী ভর্তি করা যাবে বলে জানান আইনজীবী ব্যারিস্টার ফখরুল ইসলাম।  এর বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করে ঢাবি ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।