ঢাকা ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৬ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাইবান্ধা-৫: সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ ৪ জনকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে বিরত রাখার আদেশ বহাল

মোঃ মাসুদ রানা, গাইবান্ধা

গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা (সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) মো. ইসাহাক আলীসহ চার কর্মকর্তাকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহার বা বিরত রাখতে এবং তাঁদের স্থলে নতুন কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দিতে দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে।

হাইকোর্টের ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) করা আবেদনে ‘নো অর্ডার’ দিয়েছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

অপর তিন কর্মকর্তা হলেন সাঘাটা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সাদেকুজ্জামান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আহসান হাবীব ও ফুলছড়ি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. বেলাল হোসেন।

ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারজানা রাব্বী বুবলীর করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গতকাল বুধবার হাইকোর্ট রুল দিয়ে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইসাহাক আলীসহ চার কর্মকর্তাকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহার বা বিরত রাখতে এবং তাঁদের স্থলে নতুন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিতে নির্দেশ দেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও নির্বাচন কমিশন সচিবের প্রতি এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে সিইসি আপিল বিভাগে আবেদন করেন, যা আজ চেম্বার আদালতে শুনানির জন্য ওঠে। আদালতে সিইসির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আশফাকুর রহমান। রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী প্রবীর নিয়োগী, এ বি এম আলতাফ হোসেন ও এ বি এম ছিদ্দিকুর রহমান খান।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০১:১০:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী ২০২৪
৪২ বার পড়া হয়েছে

গাইবান্ধা-৫: সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ ৪ জনকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে বিরত রাখার আদেশ বহাল

আপডেট সময় ০১:১০:২৮ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৫ জানুয়ারী ২০২৪

গাইবান্ধা-৫ (সাঘাটা-ফুলছড়ি) আসনে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা (সাঘাটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা) মো. ইসাহাক আলীসহ চার কর্মকর্তাকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহার বা বিরত রাখতে এবং তাঁদের স্থলে নতুন কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দিতে দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে।

হাইকোর্টের ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) করা আবেদনে ‘নো অর্ডার’ দিয়েছেন আপিল বিভাগের চেম্বার আদালত। চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন।

অপর তিন কর্মকর্তা হলেন সাঘাটা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সাদেকুজ্জামান, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আহসান হাবীব ও ফুলছড়ি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. বেলাল হোসেন।

ওই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারজানা রাব্বী বুবলীর করা রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গতকাল বুধবার হাইকোর্ট রুল দিয়ে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইসাহাক আলীসহ চার কর্মকর্তাকে নির্বাচনী কার্যক্রম থেকে অবিলম্বে প্রত্যাহার বা বিরত রাখতে এবং তাঁদের স্থলে নতুন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিতে নির্দেশ দেন। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) ও নির্বাচন কমিশন সচিবের প্রতি এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত চেয়ে সিইসি আপিল বিভাগে আবেদন করেন, যা আজ চেম্বার আদালতে শুনানির জন্য ওঠে। আদালতে সিইসির পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী আশফাকুর রহমান। রিট আবেদনকারীর পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী প্রবীর নিয়োগী, এ বি এম আলতাফ হোসেন ও এ বি এম ছিদ্দিকুর রহমান খান।