ঢাকা ০৭:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

জর্ডানে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন ইরান

নিজস্ব সংবাদ

সিরিয়ার সঙ্গে জর্ডান সীমান্তে মার্কিন ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। ওই হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের তিনজন সেনা সদস্য নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতের সংখা সঠিক জনা যায়নি,সূত্রমতে আহতের সংখা কয়েক ডজন হতে পারে। এ হামলার জন্য ইরান সমর্থিত মিলিট্যান্ট গ্রুপগুলোকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর প্রতিশোধ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, আমরা এর জবাব দেবো। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

 ৭ই অক্টোবর ইসরাইলে রকেট হামলা চালায় গাজার যোদ্ধাগোষ্ঠী হামাস। তারপর এটাই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের সেনা নিহতের ঘটনা। ওই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের অন্য ঘাঁটিগুলোতেও হামলা হয়েছে। কিন্তু রোববারের হামলার আগে কোনো সেনা সদস্য হতাহত হয়নি।

এই হামলার জন্য দায়ী কে, তা স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। জো বাইডেন বলেছেন, এই হামলার সঙ্গে জড়িত সবাইকে জবাবদিহিতায় আনবে যুক্তরাষ্ট্র এবং তা করা হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের পছন্দমতো।

অন্যদিকে জো বাইডেনের দুর্বলতার কারণে সেনাদের উপর এমন হামলা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট, রিপাবলিকান ডনাল্ড ট্রাম্প।
জর্ডানে এই হামলায় ইরান সমর্থিত মিলিট্যান্টদের দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও বৃটেন। কিন্তু জোর দিয়ে ইরান তা প্রত্যাখ্যান করেছে। সরকারি বার্তা সংস্থা ইরনা’কে তেহরানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসের কানানি বলেছেন, এই অঞ্চলে যে বাস্তবতা তার মোড় ঘুরানোর জন্য সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক লক্ষ্যে এসব অভিযোগ করা হচ্ছে।

হোয়াইট হাউস বলেছে, রোববার সকালেই ওই হামলা সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে অবহিত করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন ও অন্য কর্মকর্তারা। এরপর বাইডেন একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তাতে বলেছেন, জিল বাইডেন এবং আমি নিহত সেনাদের পরিবার ও বন্ধুবান্ধব এবং পুরো দেশের মানুষের কাছে সমবেদনা জানাচ্ছি। নিহত ওই সেনা সদস্যদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৭:১৭:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৪
৪২ বার পড়া হয়েছে

জর্ডানে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করলেন ইরান

আপডেট সময় ০৭:১৭:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৪

সিরিয়ার সঙ্গে জর্ডান সীমান্তে মার্কিন ঘাঁটিতে ড্রোন হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ইরান। ওই হামলায় যুক্তরাষ্ট্রের তিনজন সেনা সদস্য নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতের সংখা সঠিক জনা যায়নি,সূত্রমতে আহতের সংখা কয়েক ডজন হতে পারে। এ হামলার জন্য ইরান সমর্থিত মিলিট্যান্ট গ্রুপগুলোকে দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এর প্রতিশোধ নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেছেন, আমরা এর জবাব দেবো। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।

 ৭ই অক্টোবর ইসরাইলে রকেট হামলা চালায় গাজার যোদ্ধাগোষ্ঠী হামাস। তারপর এটাই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের সেনা নিহতের ঘটনা। ওই অঞ্চলে যুক্তরাষ্ট্রের অন্য ঘাঁটিগুলোতেও হামলা হয়েছে। কিন্তু রোববারের হামলার আগে কোনো সেনা সদস্য হতাহত হয়নি।

এই হামলার জন্য দায়ী কে, তা স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। জো বাইডেন বলেছেন, এই হামলার সঙ্গে জড়িত সবাইকে জবাবদিহিতায় আনবে যুক্তরাষ্ট্র এবং তা করা হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের পছন্দমতো।

অন্যদিকে জো বাইডেনের দুর্বলতার কারণে সেনাদের উপর এমন হামলা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট, রিপাবলিকান ডনাল্ড ট্রাম্প।
জর্ডানে এই হামলায় ইরান সমর্থিত মিলিট্যান্টদের দায়ী করেছে যুক্তরাষ্ট্র ও বৃটেন। কিন্তু জোর দিয়ে ইরান তা প্রত্যাখ্যান করেছে। সরকারি বার্তা সংস্থা ইরনা’কে তেহরানে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসের কানানি বলেছেন, এই অঞ্চলে যে বাস্তবতা তার মোড় ঘুরানোর জন্য সুনির্দিষ্ট রাজনৈতিক লক্ষ্যে এসব অভিযোগ করা হচ্ছে।

হোয়াইট হাউস বলেছে, রোববার সকালেই ওই হামলা সম্পর্কে প্রেসিডেন্ট বাইডেনকে অবহিত করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন ও অন্য কর্মকর্তারা। এরপর বাইডেন একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তাতে বলেছেন, জিল বাইডেন এবং আমি নিহত সেনাদের পরিবার ও বন্ধুবান্ধব এবং পুরো দেশের মানুষের কাছে সমবেদনা জানাচ্ছি। নিহত ওই সেনা সদস্যদের নাম প্রকাশ করা হয়নি।