ঢাকা ১১:১০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাল ভোট পড়লে বন্ধ হবে কেন্দ্র, চাকরিও হারাবে: ইসি হাবিব

নিজস্ব সংবাদ
“সর্ব প্রকার সুযোগ-সুবিধা আমরা মিডিয়াকে দেওয়ার চেষ্টা করছি, যাতে করে আমাদের চোখ এবং কান হিসেবে আপনারা কাজ করতে পারেন।

যদি একটাও জাল ভোট পড়ে প্রমাণ সাপেক্ষে সেই কেন্দ্র বন্ধ হবে এবং সেখানকার প্রিসাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং এজন্টেসহ সরকারি কর্মকর্তাদের চাকরিচ্যুত করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আহসান হাবিব খান।

মঙ্গলবার দুপুরে পিরোজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভা শেষে গনমাধ্যমকে  তিনি এ কথা বলেন।

ইসি হাবিব বলেন, “সব প্রার্থীদের সমানভাবে দেখতে হবে। লেভেল প্লেয়িং এবং জিরো টলারেন্স নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, “আমরা দেখাতে চাই, ফ্রি-ফেয়ার উৎসবমুখর পরিবেশে একটি সুন্দর নির্বাচন হবে।”

নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব আরও বলেন, “আমরা সম্পূর্ণভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি একটি ফ্রি- ফেয়ার নির্বাচন করার জন্য। আমাদের দিকে প্রত্যেক ভোটার, জনগণ, নেতা, সরকার এবং পৃথিবীর অনেক বড় বড় দেশ চেয়ে আছে। আমাদের দেশ, দেশের অর্থনীতি ও গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হবে। সে কারণে সবার সহযোগিতা দরকার।”

তিনি বলেন, “সাংবাদিকরা শুধু কেন্দ্রের ভেতরে লাইভ করতে পারবেন না । কিন্তু সব রেকর্ড নিতে পারবেন এবং যখন ভোট গণনা হবে তখন সব ধরনের ভিডিও নিতে পারবেন।

“সর্ব প্রকার সুযোগ-সুবিধা আমরা মিডিয়াকে দেওয়ার চেষ্টা করছি, যাতে করে আমাদের চোখ এবং কান হিসেবে আপনারা কাজ করতে পারেন।”

এর আগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০২৪ উপলক্ষে পিরোজপুর জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সঙ্গে আচারণবিধি ও অন্যান্য বিষয়ে মতবিনিময় সভা করেন।

সেখানে বরিশাল বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. শওকত আলীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. জামিল হাসান।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০২:৩১:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩
৫৬ বার পড়া হয়েছে

জাল ভোট পড়লে বন্ধ হবে কেন্দ্র, চাকরিও হারাবে: ইসি হাবিব

আপডেট সময় ০২:৩১:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২৩
“সর্ব প্রকার সুযোগ-সুবিধা আমরা মিডিয়াকে দেওয়ার চেষ্টা করছি, যাতে করে আমাদের চোখ এবং কান হিসেবে আপনারা কাজ করতে পারেন।

যদি একটাও জাল ভোট পড়ে প্রমাণ সাপেক্ষে সেই কেন্দ্র বন্ধ হবে এবং সেখানকার প্রিসাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং এজন্টেসহ সরকারি কর্মকর্তাদের চাকরিচ্যুত করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আহসান হাবিব খান।

মঙ্গলবার দুপুরে পিরোজপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে এক মতবিনিময় সভা শেষে গনমাধ্যমকে  তিনি এ কথা বলেন।

ইসি হাবিব বলেন, “সব প্রার্থীদের সমানভাবে দেখতে হবে। লেভেল প্লেয়িং এবং জিরো টলারেন্স নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, “আমরা দেখাতে চাই, ফ্রি-ফেয়ার উৎসবমুখর পরিবেশে একটি সুন্দর নির্বাচন হবে।”

নির্বাচন কমিশনার আহসান হাবিব আরও বলেন, “আমরা সম্পূর্ণভাবে চেষ্টা করে যাচ্ছি একটি ফ্রি- ফেয়ার নির্বাচন করার জন্য। আমাদের দিকে প্রত্যেক ভোটার, জনগণ, নেতা, সরকার এবং পৃথিবীর অনেক বড় বড় দেশ চেয়ে আছে। আমাদের দেশ, দেশের অর্থনীতি ও গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হবে। সে কারণে সবার সহযোগিতা দরকার।”

তিনি বলেন, “সাংবাদিকরা শুধু কেন্দ্রের ভেতরে লাইভ করতে পারবেন না । কিন্তু সব রেকর্ড নিতে পারবেন এবং যখন ভোট গণনা হবে তখন সব ধরনের ভিডিও নিতে পারবেন।

“সর্ব প্রকার সুযোগ-সুবিধা আমরা মিডিয়াকে দেওয়ার চেষ্টা করছি, যাতে করে আমাদের চোখ এবং কান হিসেবে আপনারা কাজ করতে পারেন।”

এর আগে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন-২০২৪ উপলক্ষে পিরোজপুর জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের সঙ্গে আচারণবিধি ও অন্যান্য বিষয়ে মতবিনিময় সভা করেন।

সেখানে বরিশাল বিভাগের বিভাগীয় কমিশনার মো. শওকত আলীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. জামিল হাসান।