ঢাকা ০৪:৩৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইলে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ব্যবসায়ীকে অপহরণ! আটক-২

স্টাফ রিপোর্টার

গতকাল ০৫ এপ্রিল, শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯টার সময় টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার মহেড়ায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে এক ব্যবসায়ীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তুলি নিয়ে যায় অজ্ঞাত ৬-৭ অপহরণকারীচক্র দলের সদস্যরা।ব্যবসায়ীর নাম মান্নান (৩২)।

কালো রঙের ১২সিটের হাইয়েচ করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় সেই ব্যবসায়ীকে।তুলে নিয়ে যাওয়ার পর ১২ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবী করা হয়। এক পর্যায়ে পরিবারের কাছ থেকে ১২ লক্ষ টাকা নগদ ও মোবাইল ফোন নিয়ে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে ছেডে দেওয়া হয় অপহৃত মান্নানকে।

ছাড়া পেয়ে ভুয়া পুলিশ বলে চিৎকার করলে অপহৃতের বন্ধুবান্ধব-স্বজনরা অপহরণকারীর গাড়ীর পিছু নেয়। এক পর্যায়ে টাঙ্গাইল রাবনা বাইপাস এলাকায় গাড়ী নিয়ন্ত্রন হারিয়ে দূর্ঘটনার কবলে পরলে, গাড়ী আটক করতে সক্ষম হয় অপহৃতের স্বজনরা।জরুরী সেবা নম্বর ৯৯৯ অবগত করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে গাড়ীর চালকসহ এক অপহরণকারীর সদস্য ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে।অন্যান্য সদস্যরা পালিয়ে যায়। এ সময় অপহরণকারীর কাছ থেকে কয়েকটি মোবাইল ফোন, র‌্যাবের লিখিত হাফ জ্যাকেট, একটি কম্পিউটার ও ব্যাগ উদ্ধার করে পুলিশ।নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় বাকি সদস্যরা।

আহত অবস্থায় অপহৃত ব্যবসায়ী মান্নানসহ অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে ২৫০ বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশের এস আই সোহেল হোসেন দেশবার্তাকে টুয়েন্টিফোরকে জানান, টহল টিম খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছায়।গিয়ে অপহরণে ব্যবহারে গাড়ী, গাড়ীর চালকসহ এক সদস্যকে আহত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে।উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে আহতদের ভর্তি করা হয়।উদ্ধারকৃত আলামত ও গাড়ী জব্দ করা হয়, এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।আজ শনিবার মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৮:২২:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৪
৭৬ বার পড়া হয়েছে

টাঙ্গাইলে ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ব্যবসায়ীকে অপহরণ! আটক-২

আপডেট সময় ০৮:২২:১২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৪

গতকাল ০৫ এপ্রিল, শুক্রবার রাত আনুমানিক ৯টার সময় টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার মহেড়ায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে এক ব্যবসায়ীকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তুলি নিয়ে যায় অজ্ঞাত ৬-৭ অপহরণকারীচক্র দলের সদস্যরা।ব্যবসায়ীর নাম মান্নান (৩২)।

কালো রঙের ১২সিটের হাইয়েচ করে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় সেই ব্যবসায়ীকে।তুলে নিয়ে যাওয়ার পর ১২ লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবী করা হয়। এক পর্যায়ে পরিবারের কাছ থেকে ১২ লক্ষ টাকা নগদ ও মোবাইল ফোন নিয়ে ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে ছেডে দেওয়া হয় অপহৃত মান্নানকে।

ছাড়া পেয়ে ভুয়া পুলিশ বলে চিৎকার করলে অপহৃতের বন্ধুবান্ধব-স্বজনরা অপহরণকারীর গাড়ীর পিছু নেয়। এক পর্যায়ে টাঙ্গাইল রাবনা বাইপাস এলাকায় গাড়ী নিয়ন্ত্রন হারিয়ে দূর্ঘটনার কবলে পরলে, গাড়ী আটক করতে সক্ষম হয় অপহৃতের স্বজনরা।জরুরী সেবা নম্বর ৯৯৯ অবগত করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ গিয়ে গাড়ীর চালকসহ এক অপহরণকারীর সদস্য ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে।অন্যান্য সদস্যরা পালিয়ে যায়। এ সময় অপহরণকারীর কাছ থেকে কয়েকটি মোবাইল ফোন, র‌্যাবের লিখিত হাফ জ্যাকেট, একটি কম্পিউটার ও ব্যাগ উদ্ধার করে পুলিশ।নগদ টাকা নিয়ে পালিয়ে যায় বাকি সদস্যরা।

আহত অবস্থায় অপহৃত ব্যবসায়ী মান্নানসহ অপহরণকারী চক্রের দুই সদস্যকে ২৫০ বিশিষ্ট টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পুলিশের এস আই সোহেল হোসেন দেশবার্তাকে টুয়েন্টিফোরকে জানান, টহল টিম খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছায়।গিয়ে অপহরণে ব্যবহারে গাড়ী, গাড়ীর চালকসহ এক সদস্যকে আহত অবস্থায় ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে।উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে আহতদের ভর্তি করা হয়।উদ্ধারকৃত আলামত ও গাড়ী জব্দ করা হয়, এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হচ্ছে।আজ শনিবার মামলার প্রস্তুতি চলছে।