ঢাকা ০৫:৫৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টানা চতুর্থ মেয়াদে সরকার গঠনের পথে আ.লীগ

দেশবার্তা ২৪ নিউজ, ডেস্ক নিউজ :

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ আজ রোববার শেষ হয়েছে। ভোট গণনাও প্রায় শেষের পর্যায়ে।  নির্বাচনের ফলাফল কী হবে, তা সহজে আঁচ করতে পারছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।  দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভূমিধস জয়ের মধ্যদিয়ে টানা চতুর্থ দফা সরকার গঠন করতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

রোববার (৭ জানুয়ারি) রাত ১১টা পর্যন্ত বেসরকারিভাবে পাওয়া ২৬৮ আসনের ফলাফলে দেখা যায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২০৭ আসন। আর আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দল জাতীয় পার্টি পেয়েছে ৯ টি আসন। তবে স্বতন্ত্রপ্রার্থীদের জয়ের হার এবার বেশি। তারা ৫৩টি আসনে জয় পেয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলে পঁচাত্তরের পর টানা চতুর্থ ও মোট পঞ্চমবারের মতো সরকার গঠন করবে আওয়ামী লীগ। আর দলটির সভাপতি ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেবেন।

এর আগে ১৯৯৬ সালের ১২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই নির্বাচনে প্রথমবার বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। দলটির সভাপতি শেখ হাসিনাও দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন।

এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় দশম জাতীয় নির্বাচন। সেই নির্বাচনেও টানা দ্বিতীয় ও মোট তিন মেয়াদে বিজয়ী হয় আওয়ামী লীগ। সেই সরকারেও প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় ও মোট পঞ্চমারের মতো সরকার গঠন করে। শেখ হাসিনা সেই সরকারেও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন।

এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও টানা চতুর্থ মেয়াদে ও মোট পঞ্চমবারের মতো আওয়ামী লীগের বিজয়ী হওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরেও তা বলা হচ্ছে। আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলে ফের প্রধানমন্ত্রী হবেন দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা। এ নিয়ে মোট পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন তিনি।

গত কয়েকদিন ধরেই আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো গুরুত্ব দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করছে। বিবিসি, রয়টার্স, ওয়াশিংটন পোস্ট, আল-জাজিরাসহ বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর শিরোনাম হচ্ছে বাংলাদেশের নির্বাচন।

এসব প্রতিবেদনে উঠে আসছে, বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ নিবন্ধিত ২৮টি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে। টানা চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পথে আওয়ামী লীগ। এমনকি পরাজিত হতে চলেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দমনমূলক পররাষ্ট্রনীতি।

বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে নৌকা প্রতীকের প্রচার-প্রচারণার কয়েকটি ছবি দেওয়া হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর অর্থনৈতিক সংকটের কারণে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) জরুরি ঋণ সহায়তার প্রয়োজন পড়েছিল বাংলাদেশের। তা সত্ত্বেও টানা চার মেয়াদে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৫:৪৬:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪
৭৮ বার পড়া হয়েছে

টানা চতুর্থ মেয়াদে সরকার গঠনের পথে আ.লীগ

আপডেট সময় ০৫:৪৬:৫৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জানুয়ারী ২০২৪

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ আজ রোববার শেষ হয়েছে। ভোট গণনাও প্রায় শেষের পর্যায়ে।  নির্বাচনের ফলাফল কী হবে, তা সহজে আঁচ করতে পারছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।  দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভূমিধস জয়ের মধ্যদিয়ে টানা চতুর্থ দফা সরকার গঠন করতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ।

রোববার (৭ জানুয়ারি) রাত ১১টা পর্যন্ত বেসরকারিভাবে পাওয়া ২৬৮ আসনের ফলাফলে দেখা যায় শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২০৭ আসন। আর আওয়ামী লীগের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী দল জাতীয় পার্টি পেয়েছে ৯ টি আসন। তবে স্বতন্ত্রপ্রার্থীদের জয়ের হার এবার বেশি। তারা ৫৩টি আসনে জয় পেয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলে পঁচাত্তরের পর টানা চতুর্থ ও মোট পঞ্চমবারের মতো সরকার গঠন করবে আওয়ামী লীগ। আর দলটির সভাপতি ও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেবেন।

এর আগে ১৯৯৬ সালের ১২ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই নির্বাচনে প্রথমবার বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। প্রথমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয় নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। সেই নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। দলটির সভাপতি শেখ হাসিনাও দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন।

এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হয় দশম জাতীয় নির্বাচন। সেই নির্বাচনেও টানা দ্বিতীয় ও মোট তিন মেয়াদে বিজয়ী হয় আওয়ামী লীগ। সেই সরকারেও প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা। ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ টানা তৃতীয় ও মোট পঞ্চমারের মতো সরকার গঠন করে। শেখ হাসিনা সেই সরকারেও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন।

এবার দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও টানা চতুর্থ মেয়াদে ও মোট পঞ্চমবারের মতো আওয়ামী লীগের বিজয়ী হওয়ার জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরেও তা বলা হচ্ছে। আওয়ামী লীগ বিজয়ী হলে ফের প্রধানমন্ত্রী হবেন দলটির সভাপতি শেখ হাসিনা। এ নিয়ে মোট পঞ্চমবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছেন তিনি।

গত কয়েকদিন ধরেই আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো গুরুত্ব দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করছে। বিবিসি, রয়টার্স, ওয়াশিংটন পোস্ট, আল-জাজিরাসহ বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর শিরোনাম হচ্ছে বাংলাদেশের নির্বাচন।

এসব প্রতিবেদনে উঠে আসছে, বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগসহ নিবন্ধিত ২৮টি রাজনৈতিক দল অংশ নিচ্ছে। টানা চতুর্থবারের মতো নির্বাচিত হতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ। গত বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী গণমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ের পথে আওয়ামী লীগ। এমনকি পরাজিত হতে চলেছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দমনমূলক পররাষ্ট্রনীতি।

বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে নৌকা প্রতীকের প্রচার-প্রচারণার কয়েকটি ছবি দেওয়া হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, গত বছর অর্থনৈতিক সংকটের কারণে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) জরুরি ঋণ সহায়তার প্রয়োজন পড়েছিল বাংলাদেশের। তা সত্ত্বেও টানা চার মেয়াদে নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।