ঢাকা ১২:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ডিমলায় বাজারের নৈশ্য প্রহরী নিয়োগ প্রসঙ্গে আলোচনা সভা

মোঃ মামুন ডিমলা (নীলফামারী)

“নিরাপদে থাকব, নিরাপত্তায় রাখব” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ১৪ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ঝুনাগাছ চাপানী বাজারে দোকান মালিক সমিতির নৈশ্য প্রহরী নিয়োগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন একরামুল হক চৌধুরী,চেয়ারম্যান ৮নং ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়ন পরিষদ।

সভায় বক্তব্য রাখেন, মোঃরেজাউল করিম, পল্লী চিকিৎসক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী চাপানী হাট। মোঃ  মাহবুবর রহমান, প্রভাষক তিস্তা ডিগ্রি কলেজ। মোঃ মোজাফফর হোসেন। শ্রী রবীন্দ্রনাথ রায়, সাবেক ইউপি সদস্য ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ। গৌরাঙ্গ রায়, সচিব ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।

বাজারের সকল দোকানের মালামাল যেন নিরাপত্তায় থাকে সে বিষয়ে আলোকপাত করেন বক্তারা।পূর্বে যে নৈশ্য প্রহরী ছিলো তাদের মধ্যে অনেকে খেলাধুলা ও হেলা করে সময় কাটান এবং সঠিক দ্বায়িত্বভার পালন করার বেপারে আলোচনা সভায় তুলে ধরা হয়।

মাহবুবর রহমান বলেন, যে কিছু বহিরাগত লোকজন বাজারে আসলে নিরাপত্তা কর্মীরা প্রশ্ন করায়,তারা প্রতিহত করার চেষ্টা করেন।তিনি আরও বলেন উপযুক্ত ও ফিটনেস লোক নিয়োগ দিতে হবে। প্রত্যেক দোকানদারকে সর্বনিম্ন ১০টাকা দিতে হবে বলে আলোচনা সভায় তুলে ধরেন।

একরামুল হক চৌধুরী বলেন যে ডিমলা উপজেলার মধ্যে চাপানী বাজার হল একটি বানিজ্যিক বাজার। এখানে গরু, ছাগল, হাস, মূরগী, ধান, চাল, ভুট্টা, রসুন, পেয়াজ সহ বিভিন্ন প্রকার কৃষি পণ্য ক্রয় বিক্রয় হয়। তাছাড়া বহিরাগত পাইকার ও ব্যবসায়ীরা এই বাজারে আসেন এবং দুরদুরান্তের হাট বাজারে উক্ত পণ্যগুলো ভোক্তাদের কাছে পৌঁছে দেন।

পরিশেষে সভাপতি সকল দোকান মালিককে নিরাপত্তা কর্মীদের মজুরি সঠিকভাবে প্রদানের আহবান জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৯:৪১:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩
১১৫ বার পড়া হয়েছে

ডিমলায় বাজারের নৈশ্য প্রহরী নিয়োগ প্রসঙ্গে আলোচনা সভা

আপডেট সময় ০৯:৪১:২২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩

“নিরাপদে থাকব, নিরাপত্তায় রাখব” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ১৪ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ঝুনাগাছ চাপানী বাজারে দোকান মালিক সমিতির নৈশ্য প্রহরী নিয়োগে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে সভাপতিত্ব করেন একরামুল হক চৌধুরী,চেয়ারম্যান ৮নং ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়ন পরিষদ।

সভায় বক্তব্য রাখেন, মোঃরেজাউল করিম, পল্লী চিকিৎসক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী চাপানী হাট। মোঃ  মাহবুবর রহমান, প্রভাষক তিস্তা ডিগ্রি কলেজ। মোঃ মোজাফফর হোসেন। শ্রী রবীন্দ্রনাথ রায়, সাবেক ইউপি সদস্য ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ। গৌরাঙ্গ রায়, সচিব ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিরা উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন।

বাজারের সকল দোকানের মালামাল যেন নিরাপত্তায় থাকে সে বিষয়ে আলোকপাত করেন বক্তারা।পূর্বে যে নৈশ্য প্রহরী ছিলো তাদের মধ্যে অনেকে খেলাধুলা ও হেলা করে সময় কাটান এবং সঠিক দ্বায়িত্বভার পালন করার বেপারে আলোচনা সভায় তুলে ধরা হয়।

মাহবুবর রহমান বলেন, যে কিছু বহিরাগত লোকজন বাজারে আসলে নিরাপত্তা কর্মীরা প্রশ্ন করায়,তারা প্রতিহত করার চেষ্টা করেন।তিনি আরও বলেন উপযুক্ত ও ফিটনেস লোক নিয়োগ দিতে হবে। প্রত্যেক দোকানদারকে সর্বনিম্ন ১০টাকা দিতে হবে বলে আলোচনা সভায় তুলে ধরেন।

একরামুল হক চৌধুরী বলেন যে ডিমলা উপজেলার মধ্যে চাপানী বাজার হল একটি বানিজ্যিক বাজার। এখানে গরু, ছাগল, হাস, মূরগী, ধান, চাল, ভুট্টা, রসুন, পেয়াজ সহ বিভিন্ন প্রকার কৃষি পণ্য ক্রয় বিক্রয় হয়। তাছাড়া বহিরাগত পাইকার ও ব্যবসায়ীরা এই বাজারে আসেন এবং দুরদুরান্তের হাট বাজারে উক্ত পণ্যগুলো ভোক্তাদের কাছে পৌঁছে দেন।

পরিশেষে সভাপতি সকল দোকান মালিককে নিরাপত্তা কর্মীদের মজুরি সঠিকভাবে প্রদানের আহবান জানিয়ে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।