ঢাকা ০৫:৪৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দাবদাহ থেকে বাঁচতে ২ হাজার গাছ লাগাবে ইবি ছাত্রলীগ

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি প্রতিনিধি

সাম্প্রতিক তীব্র তাপপ্রবাহ থেকে মুক্তি এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ১০ দিনে ৫ লাখের অধিক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২ হাজারের অধিক গাছ লাগাবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগ।

সোমবার (২২ এপ্রিল) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত ও সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয় স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরিবেশ দিবস- ২০২৪ কে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এক কোটি বৃক্ষরোপণ করে গিনেজ বুকস অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্তির কর্মসূচি পরিকল্পনা করেছে। এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ২ হাজারের অধিক বৃক্ষরোপণ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। তাছাড়া, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার অন্তর্গত সকল হল ও অনুষদ শাখার নেতৃবৃন্দকে স্ব স্ব উদ্যোগে বাড়ির আঙিনা ও নির্ধারিত স্থানে বৃক্ষরোপণের জন্য আহবান করা হলো।

এবিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয় বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ইবি ছাত্রলীগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি নিয়েছে। এর অংশ হিসেবে আগামী ৭ দিনে ৫০০ এর অধিক গাছ লাগানো হবে এবং ধাপে ধাপে পরবর্তী ৬ মাসে ২ হাজারের অধিক গাছ লাগাবে ইবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

ছাত্রলীগের এই নেতা আরো বলেন, আমাদের ইবি ক্যাম্পাস অনেকটাই সবুজ। এখানে বিভিন্ন প্রজাতির অসংখ্য গাছ রয়েছে। আর যত্রতত্র গাছ লাগানোর পক্ষপাতীও আমরা নই। তাই ইবি ছাত্রলীগ গাছ লাগানোর পাশাপাশি শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছ বিতরণও করবে যেন তারা ক্যাম্পাসের পাশাপাশি নিজ নিজ বাড়িতেও সবুজায়ন করতে পারে।

জানতে চাইলে ইবি ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত বলেন, আমরা প্রধানত এমন ধরনের গাছ লাগাবো যেগুলো খরা সহিষ্ণু এবং এই তীব্র তাপদাহের মাঝেও সহজে মারা যাবে না। আমাদের লক্ষ্য শুধু গাছের চারা রোপণ করা নয় বরং এগুলোকে সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে বাঁচিয়ে রাখার মাধ্যমে তাপপ্রবাহ থেকে মুক্তি পাওয়া।

ইবি ছাত্রলীগ সভাপতি আরো বলেন, ব্যক্তি উদ্যোগে যে শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ সংখ্যক বৃক্ষরোপণ করবে তাকে আমরা বিশেষভাবে পুরস্কৃত করবো। এর মাধ্যমে অন্যান্য শিক্ষার্থীদেরও বৃক্ষরোপণের প্রতি আগ্রহ জন্মাবে এবং বৃক্ষের প্রতি ভালোবাসা বাড়বে। পাশাপাশি আমরা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বৃক্ষরোপণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচারণা চালাবো যেন শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ ব্যক্তি উদ্যোগে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ হয়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১০:৪৫:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪
১১২ বার পড়া হয়েছে

দাবদাহ থেকে বাঁচতে ২ হাজার গাছ লাগাবে ইবি ছাত্রলীগ

আপডেট সময় ১০:৪৫:০২ অপরাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪

সাম্প্রতিক তীব্র তাপপ্রবাহ থেকে মুক্তি এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) অর্জনের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ১০ দিনে ৫ লাখের অধিক বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ২ হাজারের অধিক গাছ লাগাবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগ।

সোমবার (২২ এপ্রিল) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত ও সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয় স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, পরিবেশ দিবস- ২০২৪ কে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এক কোটি বৃক্ষরোপণ করে গিনেজ বুকস অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে অন্তর্ভুক্তির কর্মসূচি পরিকল্পনা করেছে। এই কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ২ হাজারের অধিক বৃক্ষরোপণ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। তাছাড়া, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার অন্তর্গত সকল হল ও অনুষদ শাখার নেতৃবৃন্দকে স্ব স্ব উদ্যোগে বাড়ির আঙিনা ও নির্ধারিত স্থানে বৃক্ষরোপণের জন্য আহবান করা হলো।

এবিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয় বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে ইবি ছাত্রলীগ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি নিয়েছে। এর অংশ হিসেবে আগামী ৭ দিনে ৫০০ এর অধিক গাছ লাগানো হবে এবং ধাপে ধাপে পরবর্তী ৬ মাসে ২ হাজারের অধিক গাছ লাগাবে ইবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

ছাত্রলীগের এই নেতা আরো বলেন, আমাদের ইবি ক্যাম্পাস অনেকটাই সবুজ। এখানে বিভিন্ন প্রজাতির অসংখ্য গাছ রয়েছে। আর যত্রতত্র গাছ লাগানোর পক্ষপাতীও আমরা নই। তাই ইবি ছাত্রলীগ গাছ লাগানোর পাশাপাশি শিক্ষক শিক্ষার্থীদের মাঝে গাছ বিতরণও করবে যেন তারা ক্যাম্পাসের পাশাপাশি নিজ নিজ বাড়িতেও সবুজায়ন করতে পারে।

জানতে চাইলে ইবি ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল সিদ্দিকী আরাফাত বলেন, আমরা প্রধানত এমন ধরনের গাছ লাগাবো যেগুলো খরা সহিষ্ণু এবং এই তীব্র তাপদাহের মাঝেও সহজে মারা যাবে না। আমাদের লক্ষ্য শুধু গাছের চারা রোপণ করা নয় বরং এগুলোকে সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে বাঁচিয়ে রাখার মাধ্যমে তাপপ্রবাহ থেকে মুক্তি পাওয়া।

ইবি ছাত্রলীগ সভাপতি আরো বলেন, ব্যক্তি উদ্যোগে যে শিক্ষার্থী সর্বোচ্চ সংখ্যক বৃক্ষরোপণ করবে তাকে আমরা বিশেষভাবে পুরস্কৃত করবো। এর মাধ্যমে অন্যান্য শিক্ষার্থীদেরও বৃক্ষরোপণের প্রতি আগ্রহ জন্মাবে এবং বৃক্ষের প্রতি ভালোবাসা বাড়বে। পাশাপাশি আমরা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে বৃক্ষরোপণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রচারণা চালাবো যেন শিক্ষার্থী ও সাধারণ মানুষ ব্যক্তি উদ্যোগে বৃক্ষরোপণে উদ্বুদ্ধ হয়।