ঢাকা ১১:৫৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নির্বাচন বর্জনের আহ্বান জানিয়ে রাবিতে ইউট্যাবের গণসংযোগ কর্মসূচি 

মাইনুল ইসলাম রাজু, রাবি

নির্বাচন বর্জন ও অসহযোগ আন্দোলনে জনমত গড়ার লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণ ও গণসংযোগ কর্মসূচি পালন করেছে ইউনিভার্সিটি টিচার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব)। শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন মার্কেটসহ ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এর আগে, গত ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ৪ দিনের গণসংযোগ ও অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এরই অংশ হিসেবে আজ এই কর্মসূচি পালন করেন বিএনপিপন্থি এই শিক্ষকরা।

কর্মসূচিতে ইউট্যাবের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছবিরুল ইসলাম হাওলাদার বলেন,  বাংলাদেশ আজকে গুম, খুন ও বিচারহীনতায় সংস্কৃতিতে নিমজ্জিত। বাংলাদেশের এই দুর্দিনে, গণতন্ত্রের ক্রান্তিকালে আজকে বাংলাদেশের যে ডামী নির্বাচন হচ্ছে বিএনপি এবং সমমনা দলগুলো যে নির্বাচন বর্জনের ডাক দিয়েছে। আমরা বাংলাদেশের নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমরা দল-মত নির্বিশেষে সারা দেশের মানুষকে ডামী নির্বাচন বর্জনের আহ্বান করছি।

কর্মসূচিতে নির্বাচনের সমালোচনা করে অধ্যাপক ড. জিএম শফিউর রহমান বলেন, শুধু বিরোধী দল কে হবে তা নিশ্চিত করতে যে নির্বাচন এবং সেই ডামী নির্বাচনের পিছনে রাষ্ট্রীয় যে অর্থ ব্যয় হচ্ছে আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এছাড়া গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সব দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের আহ্বান জানাচ্ছি।

ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, যে নির্বাচনের ফলাফল আগেই নির্ধারিত, সে নির্বাচনে ভোট গ্রহণের নামে জাতির সাথে তামাশা করার অধিকার কারো নেই। আসুন আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ৭তারিখের নির্বাচন বর্জন করি। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে।

এসময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন মার্কেট থেকে শুরু করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দোকান ও চত্ত্বরে উপস্থিত শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং দোকানীদের মাঝে তারা লিফলেট বিতরণ ও ভোট বর্জনের আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব প্রফেসর ড খালেদউজ্জামান মিজান, প্রফেসর ড গোলাম আরিফ, ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব প্রফেসর ড আবদুস সোবহান হীরা, প্রফেসর ড দেলোয়ার হোসেন, প্রফেসর ড পারভেজ আজহারুল হক প্রিন্স, প্রফেসর ড শরিফুল ইসলামসহ প্রমূখ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০১:০৯:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩
১৫৬ বার পড়া হয়েছে

নির্বাচন বর্জনের আহ্বান জানিয়ে রাবিতে ইউট্যাবের গণসংযোগ কর্মসূচি 

আপডেট সময় ০১:০৯:৩৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ ডিসেম্বর ২০২৩

নির্বাচন বর্জন ও অসহযোগ আন্দোলনে জনমত গড়ার লক্ষ্যে লিফলেট বিতরণ ও গণসংযোগ কর্মসূচি পালন করেছে ইউনিভার্সিটি টিচার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ইউট্যাব)। শনিবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন মার্কেটসহ ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এর আগে, গত ২১ ডিসেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ৪ দিনের গণসংযোগ ও অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এরই অংশ হিসেবে আজ এই কর্মসূচি পালন করেন বিএনপিপন্থি এই শিক্ষকরা।

কর্মসূচিতে ইউট্যাবের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ছবিরুল ইসলাম হাওলাদার বলেন,  বাংলাদেশ আজকে গুম, খুন ও বিচারহীনতায় সংস্কৃতিতে নিমজ্জিত। বাংলাদেশের এই দুর্দিনে, গণতন্ত্রের ক্রান্তিকালে আজকে বাংলাদেশের যে ডামী নির্বাচন হচ্ছে বিএনপি এবং সমমনা দলগুলো যে নির্বাচন বর্জনের ডাক দিয়েছে। আমরা বাংলাদেশের নিপীড়িত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছি। আমরা দল-মত নির্বিশেষে সারা দেশের মানুষকে ডামী নির্বাচন বর্জনের আহ্বান করছি।

কর্মসূচিতে নির্বাচনের সমালোচনা করে অধ্যাপক ড. জিএম শফিউর রহমান বলেন, শুধু বিরোধী দল কে হবে তা নিশ্চিত করতে যে নির্বাচন এবং সেই ডামী নির্বাচনের পিছনে রাষ্ট্রীয় যে অর্থ ব্যয় হচ্ছে আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এছাড়া গণতান্ত্রিক পরিস্থিতি বাংলাদেশে ফিরিয়ে আনার জন্য সব দলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের আহ্বান জানাচ্ছি।

ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, যে নির্বাচনের ফলাফল আগেই নির্ধারিত, সে নির্বাচনে ভোট গ্রহণের নামে জাতির সাথে তামাশা করার অধিকার কারো নেই। আসুন আগামী প্রজন্মের জন্য সুন্দর বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ৭তারিখের নির্বাচন বর্জন করি। নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে হবে।

এসময় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন মার্কেট থেকে শুরু করে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন দোকান ও চত্ত্বরে উপস্থিত শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং দোকানীদের মাঝে তারা লিফলেট বিতরণ ও ভোট বর্জনের আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব প্রফেসর ড খালেদউজ্জামান মিজান, প্রফেসর ড গোলাম আরিফ, ইউট্যাব কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব প্রফেসর ড আবদুস সোবহান হীরা, প্রফেসর ড দেলোয়ার হোসেন, প্রফেসর ড পারভেজ আজহারুল হক প্রিন্স, প্রফেসর ড শরিফুল ইসলামসহ প্রমূখ।