ঢাকা ০৫:৩৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পটিয়া আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায়-নৌকা প্রার্থী মোতাহের: চট্টগ্রাম ১২

নিজস্ব সংবাদ

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসনের আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধা মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, সামশুল হক চৌধুরী এমপি ১৫ বছরে পটিয়া আওয়ামী লীগের তৃনমুল নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন নামে বেনামে মামলা হামলা ও নির্যাতন করেছে। সে যেমন যুবদল জাতীয় পার্টি হয়ে আওয়ামী লীগে এসেছে। ঠিক তেমনি তিনি এমপি হওয়ার পর থেকেই দলে বিএনপি জামায়াত শিবির আর জাতীয় পার্টি থেকে লোকজন এনে নিজস্ব বলয় সৃষ্টি করে দলের ত্যাগী নেতাদের দুরে রেখেছে।

এবার প্রধানমন্ত্রী তাকে দলীয় মনোনয়ন না দিয়ে পটিয়া আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়েছেন। এখন তিনি নাকি দলের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পটিয়ার তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মনের কষ্ট গুলো বুঝতে পেরেছে। তাই প্রধানমন্ত্রী আমাকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। আগামী ৭ জানুয়ারীর নির্বাচনে জয়ী হলে পটিয়ায় আওয়ামী লীগ সুসংগঠিত করতে তৃনমুল পর্যায়ের ত্যাগী এবং পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করব। পটিয়ার মাঠি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামীতে উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে ৭ জানুয়ারী নৌকা মার্কায় ভোট দিন তাকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আনতে হবে। নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার আহবান জানান।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর) রাতে পৃথক দুটি ইউনিয়ন কচুয়াই ও শোভনদন্ডী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় উপরোক্ত কথা গুলো বলেন। কচুয়াই আওয়ামীলীগ সভাপতি মুছা খাঁন সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এডভোকেট অন্যজন সরকারের সঞ্চালনায় । অপর শোভনদন্ডী আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল হাসনাত খোকন সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ মোহাম্মদ নাছির, পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আকম সামশুজ্জমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আমম টিপু সুলতান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোজাহেরুল আলম, সিরাজুল ইসলাম মাস্টার, ডক্টর জুলকারনাইন চৌধুরী জীবন, নাছির উদ্দিন, পৌরসভা মেয়র আইয়ুব বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, মুহাম্মদ ছৈয়দ, শাহাদাত হোসেন ফরিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঋষি বিশ্বাস, মহানগর যুবলীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের মধ্যে আবুল কাশেম, মুহাম্মদ সেলিম, এহসানুল হক, ইনজামুল হক জসিম, এমএ হাশেম, মাহাবুবুর রহমান, শাহিনুর ইসলাম শানু, জাকারিয়া ডালিম, ফৌজুল কবির কুমার, কাউন্সিলর গোফরান রানা, মহিলা নেত্রী সাজেদা বেগম, সেলিনা আক্তার, আওয়ামীলীগ নেতা ডিএম জমির উদ্দিন, রাজু সরকার,নাম সেলিম , গোলাম কিবরিয়া, বজহরি মাস্টার, জসিম উদ্দিন শিশু, আব্দুল করিম, মনজুর কাদের, এম এ খালেক খান, ওসমান গনি, শাহাদাত হোসেন, মনজুরা বেগম, রহিমা বেগম, আমির হোসেন, জসিম উদ্দিন, যুবলীগ নেতা হাবিবুর হক চৌধুরী, নুরুল আমিন, নুর আলম ছিদ্দিকী, আবু সাদাত সায়েম, মহিউদ্দিন মহি, নাজিম উদ্দিন, এনামুল হক মজুমদার, ফোরকান, শাহজাহান, শাহনেওয়াজ, ফারুক, গোলাম কাদের, শাহেদ, ফরিদুল আলম, খোরশেদ আলম, আলতাফ মাহমুদ শান্ত, সামশেদ হিরো, ছাত্রলীগ নেতা তারেকুর রহমান, রুবেল দাশ বাবু, নাজমুল সাকের, নেজাম উদ্দীন, আবু ছৈয়দ, এআর শাকিল, আশরাফুল আলম সাজ্জাদ, সহ বিভিন্ন ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি/সম্পাদক, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। আমরা সবাই চেয়েছি এবারের দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করার। সারা পটিয়া জুড়ে রব উঠেছিল বিতর্কিত সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীকে দলীয় মনোনয়ন না দেয়ার। তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সেই দাবী প্রতিফলন হয়েছে আজকে। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মনোনীত প্রার্থী পটিয়ার সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যাক্তি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীর পক্ষে কাজ করে সরকারের উন্নয়ন অগ্রগতি সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মাঝে সেই বার্তা পৌঁছে দিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে হবে।

আগামী ৭ জানুয়ারীর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিব। এ বীর পটিয়ার মাঠিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিপরীতে অন্য কোন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সুযোগ দেয়া হবে না। তাকে পটিয়ায় অবাঞ্ছিত করা হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৪:৪১:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩
২৪ বার পড়া হয়েছে

পটিয়া আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায়-নৌকা প্রার্থী মোতাহের: চট্টগ্রাম ১২

আপডেট সময় ০৪:৪১:৪৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ৯ ডিসেম্বর ২০২৩

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও চট্টগ্রাম-১২ (পটিয়া) আসনের আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী বীরমুক্তিযোদ্ধা মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী বলেছেন, সামশুল হক চৌধুরী এমপি ১৫ বছরে পটিয়া আওয়ামী লীগের তৃনমুল নেতা কর্মীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন নামে বেনামে মামলা হামলা ও নির্যাতন করেছে। সে যেমন যুবদল জাতীয় পার্টি হয়ে আওয়ামী লীগে এসেছে। ঠিক তেমনি তিনি এমপি হওয়ার পর থেকেই দলে বিএনপি জামায়াত শিবির আর জাতীয় পার্টি থেকে লোকজন এনে নিজস্ব বলয় সৃষ্টি করে দলের ত্যাগী নেতাদের দুরে রেখেছে।

এবার প্রধানমন্ত্রী তাকে দলীয় মনোনয়ন না দিয়ে পটিয়া আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়েছেন। এখন তিনি নাকি দলের বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পটিয়ার তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের মনের কষ্ট গুলো বুঝতে পেরেছে। তাই প্রধানমন্ত্রী আমাকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। আগামী ৭ জানুয়ারীর নির্বাচনে জয়ী হলে পটিয়ায় আওয়ামী লীগ সুসংগঠিত করতে তৃনমুল পর্যায়ের ত্যাগী এবং পরীক্ষিত নেতাকর্মীদের নিয়ে কাজ করব। পটিয়ার মাঠি আওয়ামী লীগের ঘাঁটি।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামীতে উন্নত, সমৃদ্ধ ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে ৭ জানুয়ারী নৌকা মার্কায় ভোট দিন তাকে পুনরায় রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আনতে হবে। নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার আহবান জানান।

শনিবার (৯ ডিসেম্বর) রাতে পৃথক দুটি ইউনিয়ন কচুয়াই ও শোভনদন্ডী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় উপরোক্ত কথা গুলো বলেন। কচুয়াই আওয়ামীলীগ সভাপতি মুছা খাঁন সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক এডভোকেট অন্যজন সরকারের সঞ্চালনায় । অপর শোভনদন্ডী আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল হাসনাত খোকন সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় বক্তব্য রাখেন, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ মোহাম্মদ নাছির, পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আকম সামশুজ্জমান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক আমম টিপু সুলতান চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোজাহেরুল আলম, সিরাজুল ইসলাম মাস্টার, ডক্টর জুলকারনাইন চৌধুরী জীবন, নাছির উদ্দিন, পৌরসভা মেয়র আইয়ুব বাবুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, মুহাম্মদ ছৈয়দ, শাহাদাত হোসেন ফরিদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ঋষি বিশ্বাস, মহানগর যুবলীগ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানদের মধ্যে আবুল কাশেম, মুহাম্মদ সেলিম, এহসানুল হক, ইনজামুল হক জসিম, এমএ হাশেম, মাহাবুবুর রহমান, শাহিনুর ইসলাম শানু, জাকারিয়া ডালিম, ফৌজুল কবির কুমার, কাউন্সিলর গোফরান রানা, মহিলা নেত্রী সাজেদা বেগম, সেলিনা আক্তার, আওয়ামীলীগ নেতা ডিএম জমির উদ্দিন, রাজু সরকার,নাম সেলিম , গোলাম কিবরিয়া, বজহরি মাস্টার, জসিম উদ্দিন শিশু, আব্দুল করিম, মনজুর কাদের, এম এ খালেক খান, ওসমান গনি, শাহাদাত হোসেন, মনজুরা বেগম, রহিমা বেগম, আমির হোসেন, জসিম উদ্দিন, যুবলীগ নেতা হাবিবুর হক চৌধুরী, নুরুল আমিন, নুর আলম ছিদ্দিকী, আবু সাদাত সায়েম, মহিউদ্দিন মহি, নাজিম উদ্দিন, এনামুল হক মজুমদার, ফোরকান, শাহজাহান, শাহনেওয়াজ, ফারুক, গোলাম কাদের, শাহেদ, ফরিদুল আলম, খোরশেদ আলম, আলতাফ মাহমুদ শান্ত, সামশেদ হিরো, ছাত্রলীগ নেতা তারেকুর রহমান, রুবেল দাশ বাবু, নাজমুল সাকের, নেজাম উদ্দীন, আবু ছৈয়দ, এআর শাকিল, আশরাফুল আলম সাজ্জাদ, সহ বিভিন্ন ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সভাপতি/সম্পাদক, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীকে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন। আমরা সবাই চেয়েছি এবারের দ্বাদশ জাতীয় সংসদের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন করার। সারা পটিয়া জুড়ে রব উঠেছিল বিতর্কিত সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীকে দলীয় মনোনয়ন না দেয়ার। তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সেই দাবী প্রতিফলন হয়েছে আজকে। আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে তৃনমুল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর মনোনীত প্রার্থী পটিয়ার সর্বজন শ্রদ্ধেয় ব্যাক্তি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীর পক্ষে কাজ করে সরকারের উন্নয়ন অগ্রগতি সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মাঝে সেই বার্তা পৌঁছে দিয়ে নৌকা মার্কায় ভোট চাইতে হবে।

আগামী ৭ জানুয়ারীর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে উপহার দিব। এ বীর পটিয়ার মাঠিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিপরীতে অন্য কোন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে সুযোগ দেয়া হবে না। তাকে পটিয়ায় অবাঞ্ছিত করা হবে।