ঢাকা ০৪:৩০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পরিকল্পনামন্ত্রীকে শোকজ

নিজস্ব সংবাদ
নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সুনামগঞ্জ-৩ (জগন্নাথপুর ও শান্তিগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানকে শোকজ করেছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি। বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) সুনামগঞ্জ-৩ আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির সদস্য ও যুগ্ম জেলা জজ রশিদ আহমেদ মিলন স্বাক্ষরিত এক চিঠি দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর কাছে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৩ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী। তিনি এই আসন থেকে টানা তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ার তথ্য মতে আপনার (এমএ মান্নান) বিরুদ্ধে অভিযোগ- আপনি সম্প্রতি জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসীতে, বিগত ৯ ডিসেম্বর শান্তিগঞ্জ উপজেলার শিমুলবাক ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর বাজারে ও ১২ ডিসেম্বর জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের বড় ফেছি বাজারে কর্মীসভার ব্যানারে উন্মুক্ত জনসভায় অংশ নেন। যা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮-এর বিধি ১২ এর বিধান লঙ্ঘন করে ভোটগ্রহণের জন্য নির্ধারিত দিনের তিন সপ্তাহ সময়ের পূর্বে নির্বাচনী প্রচারণার শামিল।

এ অবস্থায় নির্বাচন পূর্ব অনিয়মের দায়ে কেন আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনে অনুসন্ধান প্রতিবেদন প্রেরণ করা হবে না তা জানিয়ে আগামী ১৭ ডিসেম্বর সকাল ১০টার মধ্যে লিখিত ব্যাখ্যা দাখিলের জন্য আপনাকে নির্দেশ দেওয়া গেল।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  হাসনাত হোসেন বলেন, আমরা কোনো নির্বাচনী প্রচারণা করিনি। আমরা শুধু কর্মীসভা করেছি। আমরা চিঠির জবাব দিয়ে আমাদের বক্তব্য জানাবো।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০১:১০:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩
১১৮ বার পড়া হয়েছে

পরিকল্পনামন্ত্রীকে শোকজ

আপডেট সময় ০১:১০:২১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২৩
নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে সুনামগঞ্জ-৩ (জগন্নাথপুর ও শান্তিগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নানকে শোকজ করেছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি। বুধবার (১৩ ডিসেম্বর) সুনামগঞ্জ-৩ আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির সদস্য ও যুগ্ম জেলা জজ রশিদ আহমেদ মিলন স্বাক্ষরিত এক চিঠি দিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর কাছে আচরণবিধি লঙ্ঘনের ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৩ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী। তিনি এই আসন থেকে টানা তিনবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, বিভিন্ন প্রিন্ট মিডিয়ার তথ্য মতে আপনার (এমএ মান্নান) বিরুদ্ধে অভিযোগ- আপনি সম্প্রতি জগন্নাথপুর উপজেলার শ্রীরামসীতে, বিগত ৯ ডিসেম্বর শান্তিগঞ্জ উপজেলার শিমুলবাক ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর বাজারে ও ১২ ডিসেম্বর জগন্নাথপুর উপজেলার আশারকান্দি ইউনিয়নের বড় ফেছি বাজারে কর্মীসভার ব্যানারে উন্মুক্ত জনসভায় অংশ নেন। যা জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮-এর বিধি ১২ এর বিধান লঙ্ঘন করে ভোটগ্রহণের জন্য নির্ধারিত দিনের তিন সপ্তাহ সময়ের পূর্বে নির্বাচনী প্রচারণার শামিল।

এ অবস্থায় নির্বাচন পূর্ব অনিয়মের দায়ে কেন আপনার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনে অনুসন্ধান প্রতিবেদন প্রেরণ করা হবে না তা জানিয়ে আগামী ১৭ ডিসেম্বর সকাল ১০টার মধ্যে লিখিত ব্যাখ্যা দাখিলের জন্য আপনাকে নির্দেশ দেওয়া গেল।

এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিব ও শান্তিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক  হাসনাত হোসেন বলেন, আমরা কোনো নির্বাচনী প্রচারণা করিনি। আমরা শুধু কর্মীসভা করেছি। আমরা চিঠির জবাব দিয়ে আমাদের বক্তব্য জানাবো।