ঢাকা ০৯:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র

নিজস্ব সংবাদ

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ৭৫ শতাংশ কাজ। আগামী বছরের জুনে উৎপাদনে যাওয়ার আশা করছেন কর্তৃপক্ষ। বিদ্যুৎকেন্দ্রটি উৎপাদনে এলে দেশের বিদ্যুৎ সঙ্কট নিরসন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে কয়েক শিফটে দিন-রাত মিলিয়ে ৬ হাজারেরও বেশি দেশি এবং চীনা শ্রমিক কাজ করছেন। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট। এর নির্মাণ কাজ করছেন চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নোরিনকো ইন্টারন্যাশনাল পাওয়ার লিমিটেড এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান রুরাল পাওয়ার লিমিটেড। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা।

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ৭৫ শতাংশ কাজ। আগামী বছরের জুনে উৎপাদনে যাওয়ার আশা করছেন কর্তৃপক্ষ। বিদ্যুৎকেন্দ্রটি উৎপাদনে এলে দেশের বিদ্যুৎ সঙ্কট নিরসন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে কয়েক শিফটে দিন-রাত মিলিয়ে ৬ হাজারেরও বেশি দেশি এবং চীনা শ্রমিক কাজ করছেন। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট। এর নির্মাণ কাজ করছেন চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নোরিনকো ইন্টারন্যাশনাল পাওয়ার লিমিটেড এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান রুরাল পাওয়ার লিমিটেড। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা।

ভোর পাঁচটা। তখনো পুরোপুরি ভোরের আলো ফোটেনি। কুয়াশাচ্ছন্ন চতুর্দিকে। এরমধ্যেই চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৪৩২ জন বিভিন্ন বয়সী পুরুষ সমবেত হয়েছেন চট্টগ্রামের আনোয়ারা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ১০ কিলোমিটার ম্যারাথনে দৌড়ে অংশ নিয়েছেন তারা।

শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) ভোর ৬টায় সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইশতিয়াক ইমনের সভাপতিত্বে এই ম্যারাথনের উদ্বোধন করেন আনোয়ারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব তৌহিদুল হক চৌধুরী।

ম্যারাথনটি আনোয়ারা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ থেকে শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু টানেলের আনোয়ারা প্রান্ত দিয়ে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে পুনরায় একই স্থানে এসে শেষ হয়। এতে সহযোগিতা করেন করে চট্টলা রানার্স। প্রতিযোগিতায় বয়স ভিত্তিক তিনটি ক্যাটাগরিতে ১০ কিলোমিটার দূরত্বের এই দৌড়ের সময়সীমা ছিল ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট। এতে ৪৩২ জন প্রতিযোগী অংশ নেন।

তিনটি ক্যাটাগরির মধ্যে (১৮-৪৫) যুব ক্যাটাগরিতে ৩৮ মিনিটে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে প্রথম স্থান অধিকার করেন শেখ নাহিদ উদ্দিন, ৩৮ মিনিট ৫ সেকেন্ডে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে দ্বিতীয় হন মোহাম্মদ জাকির হোসেন এবং ৩৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মাঈনুল আহমেদ।

অপরদিকে ১৪-১৮ বছর বয়সের ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছেন অনিক ত্রিপুরা দ্বিতীয় হয়েছেন রাশেদ হোসেন, এবং তৃতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুল ফারহান। এছাড়া ৪৫+ (বয়স্ক) ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছেন গৌর পদ সাহা, দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ তৈয়ব উদ্দিন এবং তৃতীয় হয়েছেন অসীম বিশ্বাস।

আয়োজকরা বলছেন, সবুজ দেশ আর সুস্থ সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখবে এই ম্যারাথন। শরীর ও মন সুস্থ রাখতে দৌড়ের বিকল্প নেই বলেও জানান দৌড়বিদরা। এ ধরনের আয়োজন তরুণ প্রজন্মকে মাদকাসক্ত থেকে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম বলেও মনে করেন অনেকে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১০:৪৯:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩
১২২ বার পড়া হয়েছে

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র

আপডেট সময় ১০:৪৯:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ৭৫ শতাংশ কাজ। আগামী বছরের জুনে উৎপাদনে যাওয়ার আশা করছেন কর্তৃপক্ষ। বিদ্যুৎকেন্দ্রটি উৎপাদনে এলে দেশের বিদ্যুৎ সঙ্কট নিরসন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে কয়েক শিফটে দিন-রাত মিলিয়ে ৬ হাজারেরও বেশি দেশি এবং চীনা শ্রমিক কাজ করছেন। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট। এর নির্মাণ কাজ করছেন চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নোরিনকো ইন্টারন্যাশনাল পাওয়ার লিমিটেড এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান রুরাল পাওয়ার লিমিটেড। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা।

পায়রার পাশেই নির্মিত হচ্ছে পটুয়াখালী ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র। বৈশ্বিক সংকটের মধ্যেও দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে নির্মাণ কাজ। ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে ৭৫ শতাংশ কাজ। আগামী বছরের জুনে উৎপাদনে যাওয়ার আশা করছেন কর্তৃপক্ষ। বিদ্যুৎকেন্দ্রটি উৎপাদনে এলে দেশের বিদ্যুৎ সঙ্কট নিরসন হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে কয়েক শিফটে দিন-রাত মিলিয়ে ৬ হাজারেরও বেশি দেশি এবং চীনা শ্রমিক কাজ করছেন। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট। এর নির্মাণ কাজ করছেন চীনের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান নোরিনকো ইন্টারন্যাশনাল পাওয়ার লিমিটেড এবং বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান রুরাল পাওয়ার লিমিটেড। যার নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২৭ হাজার কোটি টাকা।

ভোর পাঁচটা। তখনো পুরোপুরি ভোরের আলো ফোটেনি। কুয়াশাচ্ছন্ন চতুর্দিকে। এরমধ্যেই চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকা থেকে ৪৩২ জন বিভিন্ন বয়সী পুরুষ সমবেত হয়েছেন চট্টগ্রামের আনোয়ারা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে প্রথমবারের মতো চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত ১০ কিলোমিটার ম্যারাথনে দৌড়ে অংশ নিয়েছেন তারা।

শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) ভোর ৬টায় সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইশতিয়াক ইমনের সভাপতিত্বে এই ম্যারাথনের উদ্বোধন করেন আনোয়ারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব তৌহিদুল হক চৌধুরী।

ম্যারাথনটি আনোয়ারা উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ থেকে শুরু হয়ে বঙ্গবন্ধু টানেলের আনোয়ারা প্রান্ত দিয়ে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে পুনরায় একই স্থানে এসে শেষ হয়। এতে সহযোগিতা করেন করে চট্টলা রানার্স। প্রতিযোগিতায় বয়স ভিত্তিক তিনটি ক্যাটাগরিতে ১০ কিলোমিটার দূরত্বের এই দৌড়ের সময়সীমা ছিল ১ ঘণ্টা ৪০ মিনিট। এতে ৪৩২ জন প্রতিযোগী অংশ নেন।

তিনটি ক্যাটাগরির মধ্যে (১৮-৪৫) যুব ক্যাটাগরিতে ৩৮ মিনিটে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে প্রথম স্থান অধিকার করেন শেখ নাহিদ উদ্দিন, ৩৮ মিনিট ৫ সেকেন্ডে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে দ্বিতীয় হন মোহাম্মদ জাকির হোসেন এবং ৩৮ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে ১০ কিলোমিটার অতিক্রম করে তৃতীয় স্থান অধিকার করেন মাঈনুল আহমেদ।

অপরদিকে ১৪-১৮ বছর বয়সের ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছেন অনিক ত্রিপুরা দ্বিতীয় হয়েছেন রাশেদ হোসেন, এবং তৃতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ সাইফুল ফারহান। এছাড়া ৪৫+ (বয়স্ক) ক্যাটাগরিতে প্রথম হয়েছেন গৌর পদ সাহা, দ্বিতীয় হয়েছেন মোহাম্মদ তৈয়ব উদ্দিন এবং তৃতীয় হয়েছেন অসীম বিশ্বাস।

আয়োজকরা বলছেন, সবুজ দেশ আর সুস্থ সমাজ গঠনে ভূমিকা রাখবে এই ম্যারাথন। শরীর ও মন সুস্থ রাখতে দৌড়ের বিকল্প নেই বলেও জানান দৌড়বিদরা। এ ধরনের আয়োজন তরুণ প্রজন্মকে মাদকাসক্ত থেকে ফিরিয়ে আনতে সক্ষম বলেও মনে করেন অনেকে।