ঢাকা ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফোকলোর বিভাগ শিকড় চেনাতে জানে: নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য

মোঃ সাহাদাৎ হোসেন, নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়

 

 

আমাদের স্বদেশী বিদ্যা, স্বদেশী সম্পদের সাথে পাশ্চাত্য বিদ্যা ও সম্পদের যে সংঘাত আছে তাকে মোকাবেলা করা দরকার। আমরা যাতে চর্বিত চর্বণ গ্রহণ না করে, পশ্চিমের সবই ভালো এটিকে গ্রহণ না করে আমাদের সবকিছুকে বিসর্জন দেয়ার যে মানসিকতা সে অবস্থান থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। আমাদের যা আছে এর সবকিছু খারাপ এই শিক্ষা যে বিদ্যা দেয় এটার বিরুদ্ধে আসলে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় ফোকলোর বিভাগ। ফোকলোর বিভাগ খুঁজে পায় একশ বছর আগে আমাদের কী ছিল। আমাদের শিকড় যা ছিল সেটি খারাপ নয়, সেজন্য আমাদের ফোকলোরের গভীরে যেতে হবে।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ কনফারেন্স কক্ষে শাহিদা খাতুন ট্রাস্ট ফান্ড বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে।
ফোকলোর বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী ফোকলোর বিভাগ একটি গুরুত্বপূর্ণ ও আকর্ষণীয় বিভাগ।

তাই শিক্ষকদের পক্ষে দায়িত্ব হলো, এই বিভাগের কারিকুলামকে আউটকাম বেজড করতে হবে। যেন এই বিভাগ থেকে পাশ করা ছাত্রছাত্রীরা নিজেদেরকে বিচ্ছিন্ন, বঞ্চিত মনে না করে। ছাত্র ছাত্রীদের বলবো, তোমরা তোমাদের মনের বল শক্ত রাখো। একাডেমিকভাবে শিক্ষার্থীরা যেন চাকরীর বাজারে প্রতিযোগিতা করতে পারে সেজন্য ফোকলোর বিভাগের কারিকুলামকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করা হবে। ফোকলোর বিভাগটি থেকে সত্যিকার অর্থে দক্ষ জনবল তৈরি হবে।

ট্রাস্টফান্ড গঠনে সহায়তার জন্য উপাাচার্য বাংলা একাডেমির সাবেক পরিচালক শাহিদা খাতুনকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, এই শাহিদা খাতুন ট্রাস্ট ফান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ট্রাস্ট ফান্ড। এই ফান্ড গঠনের জন্য আমাদের নীতিমালা প্রনয়ন করতে হয়েছে।

এই নীতিমালার প্রভাব হবে সুদূরপ্রসারী। এরপর ভবিষ্যতে আরও ট্রাস্টফান্ড এই নীতিমালার আলোকে গঠিত হবে। আর্থিক কারণে কোন ছাত্রছাত্রীর পড়াশোনা বন্ধ বা ক্ষতিগ্রস্থ হবে না এই নিশ্চয়তা আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দিচ্ছি।
অনুষ্ঠানে ট্রাস্ট ফান্ডের দাতা শাহিদা খাতুন বলেন, ফোকলোর আমার একটি আবেগের জায়গা। ভালো লাগার জায়গা। এখানে ট্রাস্ট ফান্ড গঠনের পেছনে দুটো জিনিস কাজ করেছে। এর একটি হলো বিশ্ববিদ্যালয়টি নজরুলের নাম। আরেকটি হলো এই নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে যিনি উপাচার্য হয়ে এসেছেন সেই ড. সৌমিত্র শেখর মহদোয়। তিনি আমার খুব পরিচিত। অত্যন্ত ডায়নামিক মানুষ। তিনি আমাদের সুহৃদ। এই বিভাগে ট্রাস্ট ফান্ড করায় আমার আকাঙ্খা পূরণ হয়েছে। আজকে আমি সত্যিই খুব গর্বিত।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ট্রেজারার প্রফেসর ড. আতাউর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ফোকলোর বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মোহাম্মদ মেহেদী উল্লাহ।
এদিন শাহিদা খাতুন শিক্ষাবৃত্তি পান ফোকলোর বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের নুসরাত ফারদিনা চৈতী ও তৃপ্তিময় চাকমা। মেধাবৃত্তি পেয়েছেন ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের প্রতীতি সরকার প্রমা।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৭:৫৫:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
৭৩ বার পড়া হয়েছে

ফোকলোর বিভাগ শিকড় চেনাতে জানে: নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় উপাচার্য

আপডেট সময় ০৭:৫৫:২১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪

 

 

আমাদের স্বদেশী বিদ্যা, স্বদেশী সম্পদের সাথে পাশ্চাত্য বিদ্যা ও সম্পদের যে সংঘাত আছে তাকে মোকাবেলা করা দরকার। আমরা যাতে চর্বিত চর্বণ গ্রহণ না করে, পশ্চিমের সবই ভালো এটিকে গ্রহণ না করে আমাদের সবকিছুকে বিসর্জন দেয়ার যে মানসিকতা সে অবস্থান থেকে আমাদের সরে আসতে হবে। আমাদের যা আছে এর সবকিছু খারাপ এই শিক্ষা যে বিদ্যা দেয় এটার বিরুদ্ধে আসলে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয় ফোকলোর বিভাগ। ফোকলোর বিভাগ খুঁজে পায় একশ বছর আগে আমাদের কী ছিল। আমাদের শিকড় যা ছিল সেটি খারাপ নয়, সেজন্য আমাদের ফোকলোরের গভীরে যেতে হবে।

বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনস্থ কনফারেন্স কক্ষে শাহিদা খাতুন ট্রাস্ট ফান্ড বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য প্রফেসর ড. সৌমিত্র শেখর। বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করে।
ফোকলোর বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী ফোকলোর বিভাগ একটি গুরুত্বপূর্ণ ও আকর্ষণীয় বিভাগ।

তাই শিক্ষকদের পক্ষে দায়িত্ব হলো, এই বিভাগের কারিকুলামকে আউটকাম বেজড করতে হবে। যেন এই বিভাগ থেকে পাশ করা ছাত্রছাত্রীরা নিজেদেরকে বিচ্ছিন্ন, বঞ্চিত মনে না করে। ছাত্র ছাত্রীদের বলবো, তোমরা তোমাদের মনের বল শক্ত রাখো। একাডেমিকভাবে শিক্ষার্থীরা যেন চাকরীর বাজারে প্রতিযোগিতা করতে পারে সেজন্য ফোকলোর বিভাগের কারিকুলামকে আধুনিক ও যুগোপযোগী করা হবে। ফোকলোর বিভাগটি থেকে সত্যিকার অর্থে দক্ষ জনবল তৈরি হবে।

ট্রাস্টফান্ড গঠনে সহায়তার জন্য উপাাচার্য বাংলা একাডেমির সাবেক পরিচালক শাহিদা খাতুনকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, এই শাহিদা খাতুন ট্রাস্ট ফান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ট্রাস্ট ফান্ড। এই ফান্ড গঠনের জন্য আমাদের নীতিমালা প্রনয়ন করতে হয়েছে।

এই নীতিমালার প্রভাব হবে সুদূরপ্রসারী। এরপর ভবিষ্যতে আরও ট্রাস্টফান্ড এই নীতিমালার আলোকে গঠিত হবে। আর্থিক কারণে কোন ছাত্রছাত্রীর পড়াশোনা বন্ধ বা ক্ষতিগ্রস্থ হবে না এই নিশ্চয়তা আমরা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দিচ্ছি।
অনুষ্ঠানে ট্রাস্ট ফান্ডের দাতা শাহিদা খাতুন বলেন, ফোকলোর আমার একটি আবেগের জায়গা। ভালো লাগার জায়গা। এখানে ট্রাস্ট ফান্ড গঠনের পেছনে দুটো জিনিস কাজ করেছে। এর একটি হলো বিশ্ববিদ্যালয়টি নজরুলের নাম। আরেকটি হলো এই নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে যিনি উপাচার্য হয়ে এসেছেন সেই ড. সৌমিত্র শেখর মহদোয়। তিনি আমার খুব পরিচিত। অত্যন্ত ডায়নামিক মানুষ। তিনি আমাদের সুহৃদ। এই বিভাগে ট্রাস্ট ফান্ড করায় আমার আকাঙ্খা পূরণ হয়েছে। আজকে আমি সত্যিই খুব গর্বিত।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ট্রেজারার প্রফেসর ড. আতাউর রহমান। স্বাগত বক্তব্য দেন রেজিস্ট্রার কৃষিবিদ ড. মো. হুমায়ুন কবীর। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ফোকলোর বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মোহাম্মদ মেহেদী উল্লাহ।
এদিন শাহিদা খাতুন শিক্ষাবৃত্তি পান ফোকলোর বিভাগের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের নুসরাত ফারদিনা চৈতী ও তৃপ্তিময় চাকমা। মেধাবৃত্তি পেয়েছেন ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের প্রতীতি সরকার প্রমা।