ঢাকা ০৬:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বই-বিহঙ্গের ইবি শাখার উদ্বোধন

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

 

পাঠকের কাছে বিনামূল্যে বই পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে এবং প্রযুক্তিনির্ভর বর্তমান তরুণ প্রজন্মকে বইমুখী করার উদ্দেশ্যে “বই-বিহঙ্গ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়” শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারী) দুপুর ২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন মাঠে সংগঠনটির উদ্বোধন হয়।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আলিমুজ্জামান টুটুল, সন্বয়ক মামুন হোসেন, আখি খাতুন তমা, বিজন সহ অর্ধশতাধিক বইপ্রেমী উপস্থিতিতে কেক কেটে বই-বিহঙ্গ ইবি শাখার উদ্বোধন করা হয়।

পাঠক অনুভূতি জানাতে গিয়ে আসিফুল ইসলাম বলেন, আমি চাই মানুষ যেন বই পড়ায় আগ্রহী হয়। একইসাথে যারা নিয়মিত পড়ি তারা যেন পড়াটা চলমান রাখি। বইয়ের প্রতি আমাদের চাওয়া হচ্ছে নতুন কিছু জানা, ভালো কিছু শেখা। আশা করি সবাই ভালো বইগুলো পড়বো।

 

সুমাইয়া খাতুন বলেন, একটি ভালো বই পড়লে অনেক সময় আমাদের খারাপ মন ও ভালো হয়ে যায়। অদূরভবিষ্যতে আমি বই বিহঙ্গের সাথে থাকতে পারবো, বই পড়তে পারবো ভেবে আমার খুবই ভালো লাগছে।

 

সমন্বয়ক মামুন হাসান বলেন, আমার ইচ্ছা ছিল নিজের ক্যাম্পাসে বইপড়ুয়াদের একটি প্লাটফর্ম তৈরী করার। আমি আশাবাদী যে এই বইগুলো পড়ার মাধ্যমে আমরা নিজেদের জ্ঞানের প্রসার ঘটাবেন একইসাথে ভবিষ্যতে বিসিএস বা অন্যান্য পরীক্ষায় সহায়তা পাবেন। এই ক্যাম্পাসে যে এতজন বইপ্রেমী আছে তা দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। আপনারা বই পড়বেন এবং অন্যদেরও পড়তে উৎসাহিত করবেন, এটাই প্রত্যাশা।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আলিমুজ্জামান টুটুল বলেন, এত বই পড়ুয়া দেখে আমার খুবই ভালো লাগছে। আমি সাধ্যমতো চেষ্টা করবো বই বিহঙ্গে বই প্রদানের। একইসাথে, বই বিহঙ্গের প্রত্যেক সদস্যকে আমি প্রতি মাসে কারেন্ট এফেয়ার্স দিব। আমি চাই বই পড়ার মাধ্যমে দেশে আলোকিত মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পাক।

 

উল্লেখ্য, বাংলা ভাষাকে অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং সাহিত্যের আভিজাত্য ও সৌন্দর্যকে ছড়িয়ে দিতে গত বছরের ৯ নভেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাত্রা শুরু করে ‘বই-বিহঙ্গ’। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিভিন্ন জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করছে সংগঠনটি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৬:৪৯:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪
১৬৫ বার পড়া হয়েছে

বই-বিহঙ্গের ইবি শাখার উদ্বোধন

আপডেট সময় ০৬:৪৯:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৪

 

পাঠকের কাছে বিনামূল্যে বই পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে এবং প্রযুক্তিনির্ভর বর্তমান তরুণ প্রজন্মকে বইমুখী করার উদ্দেশ্যে “বই-বিহঙ্গ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়” শাখার উদ্বোধন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ জানুয়ারী) দুপুর ২ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় স্মৃতিসৌধ সংলগ্ন মাঠে সংগঠনটির উদ্বোধন হয়।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আলিমুজ্জামান টুটুল, সন্বয়ক মামুন হোসেন, আখি খাতুন তমা, বিজন সহ অর্ধশতাধিক বইপ্রেমী উপস্থিতিতে কেক কেটে বই-বিহঙ্গ ইবি শাখার উদ্বোধন করা হয়।

পাঠক অনুভূতি জানাতে গিয়ে আসিফুল ইসলাম বলেন, আমি চাই মানুষ যেন বই পড়ায় আগ্রহী হয়। একইসাথে যারা নিয়মিত পড়ি তারা যেন পড়াটা চলমান রাখি। বইয়ের প্রতি আমাদের চাওয়া হচ্ছে নতুন কিছু জানা, ভালো কিছু শেখা। আশা করি সবাই ভালো বইগুলো পড়বো।

 

সুমাইয়া খাতুন বলেন, একটি ভালো বই পড়লে অনেক সময় আমাদের খারাপ মন ও ভালো হয়ে যায়। অদূরভবিষ্যতে আমি বই বিহঙ্গের সাথে থাকতে পারবো, বই পড়তে পারবো ভেবে আমার খুবই ভালো লাগছে।

 

সমন্বয়ক মামুন হাসান বলেন, আমার ইচ্ছা ছিল নিজের ক্যাম্পাসে বইপড়ুয়াদের একটি প্লাটফর্ম তৈরী করার। আমি আশাবাদী যে এই বইগুলো পড়ার মাধ্যমে আমরা নিজেদের জ্ঞানের প্রসার ঘটাবেন একইসাথে ভবিষ্যতে বিসিএস বা অন্যান্য পরীক্ষায় সহায়তা পাবেন। এই ক্যাম্পাসে যে এতজন বইপ্রেমী আছে তা দেখে আমি অত্যন্ত আনন্দিত। আপনারা বই পড়বেন এবং অন্যদেরও পড়তে উৎসাহিত করবেন, এটাই প্রত্যাশা।

 

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশল অফিসের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী আলিমুজ্জামান টুটুল বলেন, এত বই পড়ুয়া দেখে আমার খুবই ভালো লাগছে। আমি সাধ্যমতো চেষ্টা করবো বই বিহঙ্গে বই প্রদানের। একইসাথে, বই বিহঙ্গের প্রত্যেক সদস্যকে আমি প্রতি মাসে কারেন্ট এফেয়ার্স দিব। আমি চাই বই পড়ার মাধ্যমে দেশে আলোকিত মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পাক।

 

উল্লেখ্য, বাংলা ভাষাকে অক্ষুণ্ণ রাখতে এবং সাহিত্যের আভিজাত্য ও সৌন্দর্যকে ছড়িয়ে দিতে গত বছরের ৯ নভেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে যাত্রা শুরু করে ‘বই-বিহঙ্গ’। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিভিন্ন জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখার মাধ্যমে কার্যক্রম পরিচালনা করছে সংগঠনটি।