ঢাকা ০৪:৫৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাবিতে বিজয় দিবস উদযাপিত

মাইনুল ইসলাম রাজু রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়
বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মহান বিজয় দিবস পালিত হয়। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, ইনস্টিটিউট, অনুষদ, আবাসিক হল ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এছাড়া প্রভাতের শুরু থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন রাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান৷
সকাল সোয়া সাতটায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন শেষে শহীদদের স্মরণে  এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। পরে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল ও বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা। এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শেখ রাসেল মডেল স্কুল, নগরীর অনেক গুলো স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।
এর আগে দিবসের প্রথম প্রহরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও অন্যান্য সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে জাতির বীর সন্তানদের স্মরণ করেন৷
মহান বিজয় দিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আমরা বিজয় দিবসসহ প্রধান দিনগুলোকে খুবই আড়ম্বরপূর্ণভাবে ফুল ও জাতীয় পতাকা দিয়ে স্মরণ করি। কিন্তু ঠিক বিকেলেই দেখা যায় পতাকা পদপৃষ্ঠ হচ্ছে। আমাদের সত্যিকারের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতে  এবং শহীদদের সম্মান প্রদর্শন করতে হলে শুধু ফুল দিয়ে নয় বিজয় দিবসকে আমাদের বুকে লালন করতে হবে।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, ‘আমরা সাধারণত বিজয় দিবসসহ অন্যান্য দিবসগুলোকে একদিন আনুষ্ঠানিকভাবে স্মরণ করি। কিন্তু অন্যান্য দিনে আমাদের মূল্যবোধে প্রতিফলন করতে পারি না। আমাদের উচিত বছরের প্রতিটি দিন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় অংশ নেওয়া।’
পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার সাংবাদিকদের বলেন, ‘স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা এখনো সক্রিয় আছে। তারা এ দেশকে অন্যদিকে নিয়ে যেতে চায়। আমি মনে করি, বাঙালি জাতি যতদিন জাগ্রত থাকবে, আমরা যতদিন জাগ্রত থাকবো, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার অভীষ্ট লক্ষ্যে যতদিন এগুতে থাকবো ততদিন এ দেশ পথ হারাবে না৷’
এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবাইদুর রহমান প্রামাণিক, প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক এবং প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ।
ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৮:০২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩
৮০ বার পড়া হয়েছে

বর্নাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাবিতে বিজয় দিবস উদযাপিত

আপডেট সময় ০৮:০২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩
বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) মহান বিজয় দিবস পালিত হয়। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল থেকে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন, ইনস্টিটিউট, অনুষদ, আবাসিক হল ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এছাড়া প্রভাতের শুরু থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন রাজনৈতিক, স্বেচ্ছাসেবী, সাংস্কৃতিক সংগঠন ও নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান৷
সকাল সোয়া সাতটায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন শেষে শহীদদের স্মরণে  এক মিনিট নিরবতা পালন করেন। পরে বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল ও বধ্যভূমি স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা। এছাড়া রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল অ্যান্ড কলেজ, শেখ রাসেল মডেল স্কুল, নগরীর অনেক গুলো স্কুল ও কলেজের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।
এর আগে দিবসের প্রথম প্রহরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও অন্যান্য সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে জাতির বীর সন্তানদের স্মরণ করেন৷
মহান বিজয় দিবসে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণীবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী সাজ্জাদ হোসেন বলেন, আমরা বিজয় দিবসসহ প্রধান দিনগুলোকে খুবই আড়ম্বরপূর্ণভাবে ফুল ও জাতীয় পতাকা দিয়ে স্মরণ করি। কিন্তু ঠিক বিকেলেই দেখা যায় পতাকা পদপৃষ্ঠ হচ্ছে। আমাদের সত্যিকারের মুক্তিযুদ্ধের চেতনা লালন করতে  এবং শহীদদের সম্মান প্রদর্শন করতে হলে শুধু ফুল দিয়ে নয় বিজয় দিবসকে আমাদের বুকে লালন করতে হবে।’
বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী আয়েশা সিদ্দিকা বলেন, ‘আমরা সাধারণত বিজয় দিবসসহ অন্যান্য দিবসগুলোকে একদিন আনুষ্ঠানিকভাবে স্মরণ করি। কিন্তু অন্যান্য দিনে আমাদের মূল্যবোধে প্রতিফলন করতে পারি না। আমাদের উচিত বছরের প্রতিটি দিন মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করে দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় অংশ নেওয়া।’
পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার সাংবাদিকদের বলেন, ‘স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা এখনো সক্রিয় আছে। তারা এ দেশকে অন্যদিকে নিয়ে যেতে চায়। আমি মনে করি, বাঙালি জাতি যতদিন জাগ্রত থাকবে, আমরা যতদিন জাগ্রত থাকবো, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়ার অভীষ্ট লক্ষ্যে যতদিন এগুতে থাকবো ততদিন এ দেশ পথ হারাবে না৷’
এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক হুমায়ুন কবীর, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক আব্দুস সালাম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক অবাইদুর রহমান প্রামাণিক, প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক এবং প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ।