ঢাকা ০৫:১১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ৫ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলা আমার গর্ব বাংলাদেশ আমার মা: মহিউদ্দিন

রাকিব হাসান সাগর, নারায়ণগঞ্জ

একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙ্গালী জাতির স্মৃতিবিজড়িত গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন।১৯৫২ সালের ২১ শে ফেব্রুয়ারী বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের উপর পাকিস্তানি পুলিশের গুলিবর্ষণে সালাম, রফিক, জব্বার, বরকতসহ বেশ কয়েকজন ছাত্র শহীদ হন। এই ঘটনার স্বরণে দিনটিকে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালণ করা হয়।

 

এরই প্রেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জের ১ নং ওয়ার্ডের মিজমিজি তালতলা শাহী মসজিদ কেশিয়ার বাড়ির যুবসমাজের আয়োজনে আলিফ টাওয়ার এর উদ্যোগে খেলাধুলার আয়জন করা হয়েছে তাতে আমি ধন্যবাদ জানাই যারা এত সুন্দর আয়োজন করেছে, বর্তমান যুব সমাজ মাদকের দিকে অগ্রসর হচ্ছে তা কোন ভাবেই মানতে পারাজায়না, মানুষ যত সাংস্কৃতি মনে হবে এই নিজেদের রাখবে মানুষ যত খেলাধুলায় নিজেকে যত নিয়োজিত রাখবে তত ভালো থাকবে সমাজ ভালো থাকবে।

আমরা বাঙালি এ কথাটা ভুললে চলবে না, আমাদের সংস্কৃতি আমাদের আমাদের ঐতিহ্য ইতিহাস বুকে লালন করতে হবে।প্রিতি ম্যাচ ফুটবল খেলার আয়োজন করা হয় লাল সবুজ দুইটি দলে বিভক্ত হয় দুইদলের ক্যাপ্টেনের সাথে নিয়ে টস করে খেলা উপভোগ করেন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের সাথে সাথে ছিলেন, মাসুদ, আফজাল, হুমায়ন, জয়নাল, সোহেল, সাগর, জুনায়েদ, রাজু, বিল্লাল, যমতুল্লাহ সহ আরও অনেকে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৬:১৯:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
১২৩ বার পড়া হয়েছে

বাংলা আমার গর্ব বাংলাদেশ আমার মা: মহিউদ্দিন

আপডেট সময় ০৬:১৯:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

একুশে ফেব্রুয়ারি বাঙ্গালী জাতির স্মৃতিবিজড়িত গৌরবোজ্জ্বল একটি দিন।১৯৫২ সালের ২১ শে ফেব্রুয়ারী বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের উপর পাকিস্তানি পুলিশের গুলিবর্ষণে সালাম, রফিক, জব্বার, বরকতসহ বেশ কয়েকজন ছাত্র শহীদ হন। এই ঘটনার স্বরণে দিনটিকে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালণ করা হয়।

 

এরই প্রেক্ষিতে নারায়ণগঞ্জের ১ নং ওয়ার্ডের মিজমিজি তালতলা শাহী মসজিদ কেশিয়ার বাড়ির যুবসমাজের আয়োজনে আলিফ টাওয়ার এর উদ্যোগে খেলাধুলার আয়জন করা হয়েছে তাতে আমি ধন্যবাদ জানাই যারা এত সুন্দর আয়োজন করেছে, বর্তমান যুব সমাজ মাদকের দিকে অগ্রসর হচ্ছে তা কোন ভাবেই মানতে পারাজায়না, মানুষ যত সাংস্কৃতি মনে হবে এই নিজেদের রাখবে মানুষ যত খেলাধুলায় নিজেকে যত নিয়োজিত রাখবে তত ভালো থাকবে সমাজ ভালো থাকবে।

আমরা বাঙালি এ কথাটা ভুললে চলবে না, আমাদের সংস্কৃতি আমাদের আমাদের ঐতিহ্য ইতিহাস বুকে লালন করতে হবে।প্রিতি ম্যাচ ফুটবল খেলার আয়োজন করা হয় লাল সবুজ দুইটি দলে বিভক্ত হয় দুইদলের ক্যাপ্টেনের সাথে নিয়ে টস করে খেলা উপভোগ করেন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের সাথে সাথে ছিলেন, মাসুদ, আফজাল, হুমায়ন, জয়নাল, সোহেল, সাগর, জুনায়েদ, রাজু, বিল্লাল, যমতুল্লাহ সহ আরও অনেকে।