ঢাকা ০১:০২ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বোলারদের প্রসংশায় মাতলেন উইলিয়ামসন

নিজস্ব সংবাদ

কেইন উইলিয়ামসন উইকেটে ছিলেন, সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ সেশনে এসে বাংলাদেশ নিয়ে নেয় চার উইকেট। ম্যাচের মোড়ও ঘুরে যায় তাতে।  

দুই উইকেট হাতে নিয়ে ৪৪ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিনে খেলতে নামবে নিউজিল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকদের ৩১০ রানের জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান করেছে তারা। বাংলাদেশের লিড পাওয়ার সম্ভাবনাও এখন উজ্জ্বল। দিনশেষে তাইজুল ইসলাম-নাঈম হাসানদের কৃতিত্ব দিয়েছেন উইলিয়ামসন।  

সিলেটে সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘তারা (বাংলাদেশের বোলাররা) এই কন্ডিশন সম্পর্কে ভালোভাবেই জানে। তারা একদম ঠিকঠাক ছিল। অনেক ধরনের সম্ভাবনা তৈরি করছিল। সবাই ছিল অসাধারণ। অনেক প্রশ্নের তৈরি করেছে তারা। পৃথিবীর এই প্রান্তে এসে কীভাবে ভালো করতে হয় সেটি শিখেয়েছে আমাদের। ’

প্রথম দিনই কিছু টার্ন ছিল। দ্বিতীয় দিনে সেটি বেড়েছে আরও। ব্যাটিং করাটাও হয়ে পড়েছে কঠিন। যদিও এ নিয়ে চিন্তিত নন কেন উইলিয়ামসন। আগামী কয়েকদিনের রোমাঞ্চের অপেক্ষাতেই আছেন তিনি। উইলিয়ামসনের প্রত্যাশা আরও কিছু রান করার।

তিনি বলেন, ‘দিনটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল। আমার মনে হয় ব্যাটাররা তাদের মেলে ধরার চেষ্টা করেছে। একসঙ্গে ভালো কিছু জুটি গড়েছে। আমাদের দুটি উইকেট আছে হাতে। আরও কিছু রান করতে পারলে ভালো হয় আর এরপর আমরা সুযোগ পাবো বল করার। পিচে পরিবর্তনের (স্পিনারদের জন্য ভালো) ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। মনে হচ্ছে আগামী কয়েকদিন আরও ভাঙবে। ’

‘উইকেট যেকোনোভাবে হোক বদলেছে। আমাদের কাছে এটা প্রত্যাশিতই ছিল। আমাদের ব্যাট ও বল হাতে মানিয়ে নিতে হবে। আগামীকাল সকালে কাজটা ঠিকঠাক করতে হবে, এরপর আমাদের হাতে বল আসবে। ’

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০১:৪১:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩
২৪৪ বার পড়া হয়েছে

বোলারদের প্রসংশায় মাতলেন উইলিয়ামসন

আপডেট সময় ০১:৪১:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

কেইন উইলিয়ামসন উইকেটে ছিলেন, সেঞ্চুরিও তুলে নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষ সেশনে এসে বাংলাদেশ নিয়ে নেয় চার উইকেট। ম্যাচের মোড়ও ঘুরে যায় তাতে।  

দুই উইকেট হাতে নিয়ে ৪৪ রানে পিছিয়ে থেকে তৃতীয় দিনে খেলতে নামবে নিউজিল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকদের ৩১০ রানের জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান করেছে তারা। বাংলাদেশের লিড পাওয়ার সম্ভাবনাও এখন উজ্জ্বল। দিনশেষে তাইজুল ইসলাম-নাঈম হাসানদের কৃতিত্ব দিয়েছেন উইলিয়ামসন।  

সিলেটে সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘তারা (বাংলাদেশের বোলাররা) এই কন্ডিশন সম্পর্কে ভালোভাবেই জানে। তারা একদম ঠিকঠাক ছিল। অনেক ধরনের সম্ভাবনা তৈরি করছিল। সবাই ছিল অসাধারণ। অনেক প্রশ্নের তৈরি করেছে তারা। পৃথিবীর এই প্রান্তে এসে কীভাবে ভালো করতে হয় সেটি শিখেয়েছে আমাদের। ’

প্রথম দিনই কিছু টার্ন ছিল। দ্বিতীয় দিনে সেটি বেড়েছে আরও। ব্যাটিং করাটাও হয়ে পড়েছে কঠিন। যদিও এ নিয়ে চিন্তিত নন কেন উইলিয়ামসন। আগামী কয়েকদিনের রোমাঞ্চের অপেক্ষাতেই আছেন তিনি। উইলিয়ামসনের প্রত্যাশা আরও কিছু রান করার।

তিনি বলেন, ‘দিনটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল। আমার মনে হয় ব্যাটাররা তাদের মেলে ধরার চেষ্টা করেছে। একসঙ্গে ভালো কিছু জুটি গড়েছে। আমাদের দুটি উইকেট আছে হাতে। আরও কিছু রান করতে পারলে ভালো হয় আর এরপর আমরা সুযোগ পাবো বল করার। পিচে পরিবর্তনের (স্পিনারদের জন্য ভালো) ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে। মনে হচ্ছে আগামী কয়েকদিন আরও ভাঙবে। ’

‘উইকেট যেকোনোভাবে হোক বদলেছে। আমাদের কাছে এটা প্রত্যাশিতই ছিল। আমাদের ব্যাট ও বল হাতে মানিয়ে নিতে হবে। আগামীকাল সকালে কাজটা ঠিকঠাক করতে হবে, এরপর আমাদের হাতে বল আসবে। ’