ঢাকা ১১:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মালিকরা বিলাসিতা না করে শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা নিশ্চিত করুন: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব সংবাদ

শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করলে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তি হলেও তাকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

মালিকদের বিলাসিতা না করে শ্রমিকদের স্বার্থ দেখার আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, কেউ শ্রমিকদের বঞ্চিত করলে, সে যেই হোক না কেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন হলেও তাকে আমরা  ছাড়ব না। শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করতে হবে, তাদের দেখতে হবে।

আওয়ামী লীগ যতবারই ক্ষমতায় এসেছে শ্রমিকের মজুরি বাড়িয়েছে উল্লেখ্য করে শেখ হাসিনা বলেন, খেটে খাওয়া মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনই আওয়ামী লীগের লক্ষ্য। সরকার চায় দক্ষ জনশক্তি গড়ে উঠুক। শ্রমিকদের কল্যাণ দেখা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, শিল্প কারখানা যাতে বন্ধ না হয় তার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি আমরা। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশের মতো আমাদের দেশের নারীরা সমমজুরি পায়। আমাদের সময় নারী শ্রমিকদের সংখ্যা ৪৩.১ ভাগে বৃদ্ধি পেয়েছে। মেয়েরা সব জায়গায় কাজ করতে পারে। আমরা সেই সুযোগ তৈরি করে দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আন্দোলনের নামে বাসে ট্রাকে-আগুন দিয়ে শ্রমিকসহ সাধারণ মানুষ হত্যা করেছে বিএনপি। প্রতিটি ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক-মালিককে আমরা সহায়তা দিয়েছি। শ্রমিকদের কল্যাণ দেখা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব বলে মনে করি। মানুষের কল্যাণ করাই আমাদের প্রচেষ্টা।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৫:৫৯:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মে ২০২৪
৬৭ বার পড়া হয়েছে

মালিকরা বিলাসিতা না করে শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা নিশ্চিত করুন: প্রধানমন্ত্রী

আপডেট সময় ০৫:৫৯:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ মে ২০২৪

শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করলে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ব্যক্তি হলেও তাকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (৩০ এপ্রিল) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মহান মে দিবস উপলক্ষে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

মালিকদের বিলাসিতা না করে শ্রমিকদের স্বার্থ দেখার আহ্বান জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, কেউ শ্রমিকদের বঞ্চিত করলে, সে যেই হোক না কেন, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন হলেও তাকে আমরা  ছাড়ব না। শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ করতে হবে, তাদের দেখতে হবে।

আওয়ামী লীগ যতবারই ক্ষমতায় এসেছে শ্রমিকের মজুরি বাড়িয়েছে উল্লেখ্য করে শেখ হাসিনা বলেন, খেটে খাওয়া মানুষের ভাগ্য পরিবর্তনই আওয়ামী লীগের লক্ষ্য। সরকার চায় দক্ষ জনশক্তি গড়ে উঠুক। শ্রমিকদের কল্যাণ দেখা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, শিল্প কারখানা যাতে বন্ধ না হয় তার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছি আমরা। পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশের মতো আমাদের দেশের নারীরা সমমজুরি পায়। আমাদের সময় নারী শ্রমিকদের সংখ্যা ৪৩.১ ভাগে বৃদ্ধি পেয়েছে। মেয়েরা সব জায়গায় কাজ করতে পারে। আমরা সেই সুযোগ তৈরি করে দিয়েছি।

শেখ হাসিনা বলেন, আন্দোলনের নামে বাসে ট্রাকে-আগুন দিয়ে শ্রমিকসহ সাধারণ মানুষ হত্যা করেছে বিএনপি। প্রতিটি ক্ষতিগ্রস্ত শ্রমিক-মালিককে আমরা সহায়তা দিয়েছি। শ্রমিকদের কল্যাণ দেখা আওয়ামী লীগের দায়িত্ব বলে মনে করি। মানুষের কল্যাণ করাই আমাদের প্রচেষ্টা।