ঢাকা ১০:৪৮ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাতের আধারে হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে মুসলমান রিয়াজ উধাও।

মোঃ শাহিন হাওলাদার, মির্জাগঞ্জ

পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৩নং আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ আমড়াগাছিয়া গ্রামে ২ সন্তানের জনক মোঃ রিয়াজ ফকির হিন্দু কিশোরী অপর্না কে নিয়ে রাতের আধারে উধাও, এ ঘটনা ঘটে ১৬ জানুয়ারি রাত ৩টার দিকে। একি গ্রামের পরিচিত তারা পরে মুঠোফোনে অতপর গভীর মন দেয়া নেওয়া।

 

প্রেমের টানে মুসলিম পরিবারে ২ সন্তারে বাবা রিয়াজ হিন্দু কিশোরী অপর্ণা কে নিয়ে পালল, অবাক প্রেম, ভালবাসা ও প্রেমপ্রীতি মানে না জাতকুল। কিংবা বয়স-আচার-আচারন ও রীতি। সনাতন ধর্মালম্বীর এ কিশোরী ও মুসলিম যুবকের মধ্যে মুঠোফোনে সম্পর্ক হয়। সেটিকে বাস্তব রুপ দিতে তারা স্বপ্ন বুনেন সুখের নীড় তৈরী করবে। এতে করে এ মুসলিম স্বামীর সংসার কচিকাঁচার দুটি অবুঝ শিশুকে ফেলে সটকে পড়ে। হিন্দু কিশোরী।

তবে জাতকুল ও ধর্ম তাকে থেমে রাখে নি। মেয়ের বয়স ১৭ ও যুবকের বয়স ৩৬। মেয়েটি অবাহিত। মুসলিম কিন্তু ছেলে বিবাহিত। কি হয়েছে বিবাহ আর বিবাহ হয়নি সেটিকে পাত্তাও দেয়নি এ যুবক ও যুবতী। সংসারের মায়া মমতা ও বন্ধন ছেড়ে পালিয়ে যায় হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে। স্ত্রী নির্বাক,স্বামী হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে উধাও হয়েছেন সেটি জেনে গেছেন স্ত্রী মনি বেগম তবু চাই ২ সন্তানদের বাবাকে ফিরিয়ে পেতে। প্রানপন প্রচেষ্টা চলছে। তবে প্রেমিক দম্পতি উধাও। নেই এ দুজনের সন্ধান। চলছে খোঁজাখোজি। ১৬ জানুয়ারি রাত ৩ টা থেকে এ দুইজনের নেই সন্ধান। তবে প্রেম প্রীতির এ সম্পর্ক প্রতারনার পূর্বাভাস পরিলক্ষিত হয়েছে।

কিশোরীর পিতা গৌতম এর তথ্য মতে, আমার মেয়ে আপর্না কে সকালে খোজা খুজি করে না পেয়ে পাশের বাড়ির রবি ঠাকুরের কাছে গেলে তিনি জানন, মৃত্যু নুরু ফকির এর ছেলে মোঃ রিয়াজ ফকির রাতের আধারে নিয়ে পালিয়ে যায় এবং আমার মেয়ে মুঠোফোনে নিশ্চিত করেন যে সে রিয়াজের সাথে চলে গেছেন, আর আমার মেয়ের সাথে কবে কিভাবে সম্পর্ক হয়েছে তা আমার ফ্যামিলির কেউ জানে না পরে আমারা ইউনিয়ান চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করি, নগত অর্থ বা স্বর্ণ অলংকার বাসা থেকে নিছে কিনা অপর্নার মা জানান, তার জামা কাপর ছারা কিছু নেয়নি।

 

এদিকে রিয়াজের স্ত্রী জানান যে, ১১ বছর পূর্বে মনি বেগমের সাথে রিয়াজএর মধ্যে মুসলিম শরিয়াত মোতাবেক তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। দাম্পত্য জীবনে এ দম্পতির ১ ছেলে ও ১ কনে সন্তান রয়েছে। ১ম সন্তানের নাম রেজাউল করিম (১২)২য় সন্তান। নুসরাত জাহান(৭)বাবার খোঁজে দুই সন্তান প্রায় পাগল। জন্ম দাতা পিতার সন্ধান মিলছে না।

 

এ দিকে মনি তার স্বামীর মুঠোফোন বার বার ফোন দিলে তাকে ফোনে পাওয়া যায় না।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৮:৫৩:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪
৮৪ বার পড়া হয়েছে

রাতের আধারে হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে মুসলমান রিয়াজ উধাও।

আপডেট সময় ০৮:৫৩:৪৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৪

পটুয়াখালী জেলার মির্জাগঞ্জ উপজেলার ৩নং আমড়াগাছিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ আমড়াগাছিয়া গ্রামে ২ সন্তানের জনক মোঃ রিয়াজ ফকির হিন্দু কিশোরী অপর্না কে নিয়ে রাতের আধারে উধাও, এ ঘটনা ঘটে ১৬ জানুয়ারি রাত ৩টার দিকে। একি গ্রামের পরিচিত তারা পরে মুঠোফোনে অতপর গভীর মন দেয়া নেওয়া।

 

প্রেমের টানে মুসলিম পরিবারে ২ সন্তারে বাবা রিয়াজ হিন্দু কিশোরী অপর্ণা কে নিয়ে পালল, অবাক প্রেম, ভালবাসা ও প্রেমপ্রীতি মানে না জাতকুল। কিংবা বয়স-আচার-আচারন ও রীতি। সনাতন ধর্মালম্বীর এ কিশোরী ও মুসলিম যুবকের মধ্যে মুঠোফোনে সম্পর্ক হয়। সেটিকে বাস্তব রুপ দিতে তারা স্বপ্ন বুনেন সুখের নীড় তৈরী করবে। এতে করে এ মুসলিম স্বামীর সংসার কচিকাঁচার দুটি অবুঝ শিশুকে ফেলে সটকে পড়ে। হিন্দু কিশোরী।

তবে জাতকুল ও ধর্ম তাকে থেমে রাখে নি। মেয়ের বয়স ১৭ ও যুবকের বয়স ৩৬। মেয়েটি অবাহিত। মুসলিম কিন্তু ছেলে বিবাহিত। কি হয়েছে বিবাহ আর বিবাহ হয়নি সেটিকে পাত্তাও দেয়নি এ যুবক ও যুবতী। সংসারের মায়া মমতা ও বন্ধন ছেড়ে পালিয়ে যায় হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে। স্ত্রী নির্বাক,স্বামী হিন্দু কিশোরী কে নিয়ে উধাও হয়েছেন সেটি জেনে গেছেন স্ত্রী মনি বেগম তবু চাই ২ সন্তানদের বাবাকে ফিরিয়ে পেতে। প্রানপন প্রচেষ্টা চলছে। তবে প্রেমিক দম্পতি উধাও। নেই এ দুজনের সন্ধান। চলছে খোঁজাখোজি। ১৬ জানুয়ারি রাত ৩ টা থেকে এ দুইজনের নেই সন্ধান। তবে প্রেম প্রীতির এ সম্পর্ক প্রতারনার পূর্বাভাস পরিলক্ষিত হয়েছে।

কিশোরীর পিতা গৌতম এর তথ্য মতে, আমার মেয়ে আপর্না কে সকালে খোজা খুজি করে না পেয়ে পাশের বাড়ির রবি ঠাকুরের কাছে গেলে তিনি জানন, মৃত্যু নুরু ফকির এর ছেলে মোঃ রিয়াজ ফকির রাতের আধারে নিয়ে পালিয়ে যায় এবং আমার মেয়ে মুঠোফোনে নিশ্চিত করেন যে সে রিয়াজের সাথে চলে গেছেন, আর আমার মেয়ের সাথে কবে কিভাবে সম্পর্ক হয়েছে তা আমার ফ্যামিলির কেউ জানে না পরে আমারা ইউনিয়ান চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত অভিযোগ করি, নগত অর্থ বা স্বর্ণ অলংকার বাসা থেকে নিছে কিনা অপর্নার মা জানান, তার জামা কাপর ছারা কিছু নেয়নি।

 

এদিকে রিয়াজের স্ত্রী জানান যে, ১১ বছর পূর্বে মনি বেগমের সাথে রিয়াজএর মধ্যে মুসলিম শরিয়াত মোতাবেক তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। দাম্পত্য জীবনে এ দম্পতির ১ ছেলে ও ১ কনে সন্তান রয়েছে। ১ম সন্তানের নাম রেজাউল করিম (১২)২য় সন্তান। নুসরাত জাহান(৭)বাবার খোঁজে দুই সন্তান প্রায় পাগল। জন্ম দাতা পিতার সন্ধান মিলছে না।

 

এ দিকে মনি তার স্বামীর মুঠোফোন বার বার ফোন দিলে তাকে ফোনে পাওয়া যায় না।