ঢাকা ০৭:১৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শিক্ষক লাঞ্চনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিতে ইবি শাপলা ফোরামের আল্টিমেটাম

ওয়াসিফ আল আবরার, ইবি

 

গত ৬ ফেব্রুয়ারী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্যের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া বহিরাগত ও অছাত্র কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্চনার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করার দাবিতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরাম।

রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণের ব্যক্তিগত কক্ষে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী পরিষদের জরুরি সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তে এই আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো: রবিউল হোসেনের যৌথ স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত ০৬ ফেব্রুয়ারী উপাচার্য মহোদয়ের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ০৭ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত শাপলা ফোরামের জরুরি সভার সিদ্ধান্ত (উপাচার্য মহোদয় বরাবর প্রেরিত হয়েছে) বাস্তবায়নের অগ্রগতি বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। উক্ত সময়ে প্রক্টরিয়াল বডির ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ ছিল যার দায় প্রক্টরিয়াল বডি এড়াতে পারে না।

উপাচার্য মহোদয়ের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া বহিরাগত ও অছাত্র কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় জড়িতদের আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে (অর্থাৎ ১২/০২/২৪ তারিখ দুপুর ১টা) শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানানো হচ্ছে। অন্যথায় এর প্রতিবাদে শাপলা ফোরামে নেতৃত্বে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১টায় মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুরাল চত্বরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও, জরুরী এই সভায় গত ১০ তারিখ বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভায় কোনরূপ আলোচনা করার সুযোগ না দিয়ে যে প্রক্রিয়ায় সভা সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে তাতে উপস্থিত সদস্যবৃন্দ অপমানিতবোধ করেছেন মর্মে উল্লেখ করে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তির বিষয়ে একাডেমিক কাউন্সিলে গৃহীত সিদ্ধান্তের বিপক্ষে কোন মতামত প্রদানের সুপারিশ করা হয়নি।

এদিকে, এদিন দুপুরে অনুষ্ঠিত শিক্ষক সমিতির অপর এক সভায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে গুচ্ছ থেকে বেরিয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারী বেলা ১২ টার মধ্যে নিজস্ব পদ্ধতিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরুর দাবি জানানো হয়েছে।

এছাড়াও, গত ১০ তারিখে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভা অস্বাভাবিকভাবে সমাপ্ত করার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ইবিকে গুচ্ছে থাকতে নির্দেশনা প্রদান করে যে চিঠি দিয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান বলেন, কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভা অপ্রত্যাশিতভাবে শেষ করায় প্রশাসনের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।

আগামী ১৩ তারিখ দুপুর ১২ টার মধ্যে নিজস্ব পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট ভর্তি কার্যক্রম শুরুর দাবি জানানো হয়েছে। দাবি না মানলে দুপুর ১ টায় সভা করে আমরা পরবর্তী করণীয় ঠিক করব। আর ইউজিসি যে চিঠি দিয়েছে সে সম্পর্কেও আমরা প্রশাসনের কাছে বিস্তারিত জানতে চেয়েছি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৮:১৩:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৫৬ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষক লাঞ্চনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিতে ইবি শাপলা ফোরামের আল্টিমেটাম

আপডেট সময় ০৮:১৩:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

গত ৬ ফেব্রুয়ারী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) উপাচার্যের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া বহিরাগত ও অছাত্র কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্চনার ঘটনায় জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করার দাবিতে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরাম।

রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণের ব্যক্তিগত কক্ষে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী পরিষদের জরুরি সভায় গৃহীত সিদ্ধান্তে এই আল্টিমেটাম দেওয়া হয়।

শাপলা ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো: রবিউল হোসেনের যৌথ স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, গত ০৬ ফেব্রুয়ারী উপাচার্য মহোদয়ের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে গত ০৭ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত শাপলা ফোরামের জরুরি সভার সিদ্ধান্ত (উপাচার্য মহোদয় বরাবর প্রেরিত হয়েছে) বাস্তবায়নের অগ্রগতি বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। উক্ত সময়ে প্রক্টরিয়াল বডির ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ ছিল যার দায় প্রক্টরিয়াল বডি এড়াতে পারে না।

উপাচার্য মহোদয়ের কার্যালয়ে ঘটে যাওয়া বহিরাগত ও অছাত্র কর্তৃক শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় জড়িতদের আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যে (অর্থাৎ ১২/০২/২৪ তারিখ দুপুর ১টা) শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানানো হচ্ছে। অন্যথায় এর প্রতিবাদে শাপলা ফোরামে নেতৃত্বে আগামী ১২ ফেব্রুয়ারী দুপুর ১টায় মৃত্যুঞ্জয়ী মুজিব ম্যুরাল চত্বরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়াও, জরুরী এই সভায় গত ১০ তারিখ বিকাল ৩টায় অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভায় কোনরূপ আলোচনা করার সুযোগ না দিয়ে যে প্রক্রিয়ায় সভা সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়েছে তাতে উপস্থিত সদস্যবৃন্দ অপমানিতবোধ করেছেন মর্মে উল্লেখ করে ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণিতে ভর্তির বিষয়ে একাডেমিক কাউন্সিলে গৃহীত সিদ্ধান্তের বিপক্ষে কোন মতামত প্রদানের সুপারিশ করা হয়নি।

এদিকে, এদিন দুপুরে অনুষ্ঠিত শিক্ষক সমিতির অপর এক সভায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে গুচ্ছ থেকে বেরিয়ে ১৩ ফেব্রুয়ারী বেলা ১২ টার মধ্যে নিজস্ব পদ্ধতিতে ভর্তি কার্যক্রম শুরুর দাবি জানানো হয়েছে।

এছাড়াও, গত ১০ তারিখে অনুষ্ঠিত কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভা অস্বাভাবিকভাবে সমাপ্ত করার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি) ইবিকে গুচ্ছে থাকতে নির্দেশনা প্রদান করে যে চিঠি দিয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চাওয়া হয়েছে।

এব্যাপারে জানতে চাইলে শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মামুনুর রহমান বলেন, কেন্দ্রীয় ভর্তি কমিটির সভা অপ্রত্যাশিতভাবে শেষ করায় প্রশাসনের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হবে।

আগামী ১৩ তারিখ দুপুর ১২ টার মধ্যে নিজস্ব পদ্ধতিতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিকট ভর্তি কার্যক্রম শুরুর দাবি জানানো হয়েছে। দাবি না মানলে দুপুর ১ টায় সভা করে আমরা পরবর্তী করণীয় ঠিক করব। আর ইউজিসি যে চিঠি দিয়েছে সে সম্পর্কেও আমরা প্রশাসনের কাছে বিস্তারিত জানতে চেয়েছি।