ঢাকা ০১:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সংশোধনী হচ্ছে আলোচিত শরিফ- শরীফার গল্প

নিজস্ব সংবাদ

সপ্তম শ্রেণির ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান বইয়ের আলোচিত-সমালোচিত ‘শরীফার গল্প’ সংশোধন করা হবে। এছাড়াও কিছু সংশোধন আসছে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির বিভিন্ন পাঠ্য বইয়ে। আগামী এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই এ সংশোধনী আসবে বলে জানিয়েছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

গত শনিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সভায় মূল্যায়ন পদ্ধতি ও কারিকুলাম সংক্রান্ত একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কারিকুলাম এবং পাঠ্যপুস্তক বিতরণ ও মানোন্নয়ন সংক্রান্ত পর্যালোচনা সভায় এই কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। এতে এনসিটিবির প্রতিনিধি, মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, বোর্ডসমূহের প্রতিনিধিরা এই কমিটির সদস্য হবেন।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্য পুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ফরহাদুল ইসলাম বলেন, ইংরেজি মাধ্যমের ৭টি বই ভুল ছাপা হয়েছে। তাই বইগুলো উঠিয়ে সংশোধনে দেওয়া হয়েছে ।
তিনি বলেন, শরীফার গল্পটি থাকছে, তবে সংশোধন হচ্ছে। বিজ্ঞানসহ আরো বেশ কয়েকটি বইয়ের সংশোধন দিতে হবে। আরো কোনো সংশোধনের প্রয়োজন আছে কিনা, সেজন্যও কাজ চলছে। সব সংশোধন আসার পর এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে সংশোধন করা বই শিক্ষার্থীদের দেয়া হবে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৭:৪৭:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৭৭ বার পড়া হয়েছে

সংশোধনী হচ্ছে আলোচিত শরিফ- শরীফার গল্প

আপডেট সময় ০৭:৪৭:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

সপ্তম শ্রেণির ইতিহাস ও সামাজিক বিজ্ঞান বইয়ের আলোচিত-সমালোচিত ‘শরীফার গল্প’ সংশোধন করা হবে। এছাড়াও কিছু সংশোধন আসছে ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির বিভিন্ন পাঠ্য বইয়ে। আগামী এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই এ সংশোধনী আসবে বলে জানিয়েছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)।

গত শনিবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এক সভায় মূল্যায়ন পদ্ধতি ও কারিকুলাম সংক্রান্ত একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কারিকুলাম এবং পাঠ্যপুস্তক বিতরণ ও মানোন্নয়ন সংক্রান্ত পর্যালোচনা সভায় এই কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। এতে এনসিটিবির প্রতিনিধি, মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, বোর্ডসমূহের প্রতিনিধিরা এই কমিটির সদস্য হবেন।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্য পুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মো. ফরহাদুল ইসলাম বলেন, ইংরেজি মাধ্যমের ৭টি বই ভুল ছাপা হয়েছে। তাই বইগুলো উঠিয়ে সংশোধনে দেওয়া হয়েছে ।
তিনি বলেন, শরীফার গল্পটি থাকছে, তবে সংশোধন হচ্ছে। বিজ্ঞানসহ আরো বেশ কয়েকটি বইয়ের সংশোধন দিতে হবে। আরো কোনো সংশোধনের প্রয়োজন আছে কিনা, সেজন্যও কাজ চলছে। সব সংশোধন আসার পর এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে সংশোধন করা বই শিক্ষার্থীদের দেয়া হবে।