ঢাকা ১০:২৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ৭ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাবেক ভ্যাট কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব সংবাদ

ক্ষমতার অপব্যবহার করে একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে চার মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানকে ১৫২ কোটি টাকা সুদ মওকুফ করায় মূসকের (ভ্যাট) সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমান চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (১১ জুন) দুদকের ঢাকা সমন্বিত কার্যালয়-১-এ মামলাটি করেছেন সংস্থাটির সহকারী পরিচালক শাহ আলম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে দুদকের সচিব খোরশেদা ইয়াসমীন নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মূসকের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমান ক্ষমতার অপব্যবহার করে একক সিদ্ধান্তে চারটি মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানকে এই সুবিধা দিয়েছিলেন। এতে সরকারের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

তিনি বলেন, সাবেক কমিশনার একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে গ্রামীণফোন লিমিটেড, বাংলালিংক, রবি ও এয়ারটেলের ১৫২ কোটি ৮৯ হাজার ৩৯০ টাকা অপরিশোধিত সুদ মওকুফ করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামি ওয়াহিদা রহমান চৌধুরী আইন বহির্ভূতভাবে অসৎ উদ্দেশ্যে একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে ১৬টি নথিতে ১৫২ কোটি ৮৯ লাখ ৩৯০ টাকা অপরিশোধিত সুদ মওকুফ করে দেন। ২০২০ সালের মার্চ থেকে ২০২২ সালের নভেম্বর মাসের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

আসামি ক্ষমতার অপব্যবহার ও অপরাধজনক বিশ্বাসভঙ্গ করে সরকারের আর্থিক ক্ষতিসাধন করেছেন, যা দণ্ডবিধির ২১৮/৪০৯ ধারা ও ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। এ কারণে তার বিরুদ্ধে বর্ণিত ধারায় মামলা করা হয়।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৭:১৩:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
৩৭ বার পড়া হয়েছে

সাবেক ভ্যাট কমিশনার ওয়াহিদা রহমানের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

আপডেট সময় ০৭:১৩:১৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪

ক্ষমতার অপব্যবহার করে একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে চার মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানকে ১৫২ কোটি টাকা সুদ মওকুফ করায় মূসকের (ভ্যাট) সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমান চৌধুরীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (১১ জুন) দুদকের ঢাকা সমন্বিত কার্যালয়-১-এ মামলাটি করেছেন সংস্থাটির সহকারী পরিচালক শাহ আলম বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

এ ব্যাপারে দুদকের সচিব খোরশেদা ইয়াসমীন নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, মূসকের সাবেক কমিশনার ওয়াহিদা রহমান ক্ষমতার অপব্যবহার করে একক সিদ্ধান্তে চারটি মোবাইল অপারেটর প্রতিষ্ঠানকে এই সুবিধা দিয়েছিলেন। এতে সরকারের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে।

তিনি বলেন, সাবেক কমিশনার একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে গ্রামীণফোন লিমিটেড, বাংলালিংক, রবি ও এয়ারটেলের ১৫২ কোটি ৮৯ হাজার ৩৯০ টাকা অপরিশোধিত সুদ মওকুফ করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, আসামি ওয়াহিদা রহমান চৌধুরী আইন বহির্ভূতভাবে অসৎ উদ্দেশ্যে একক নির্বাহী সিদ্ধান্তে ১৬টি নথিতে ১৫২ কোটি ৮৯ লাখ ৩৯০ টাকা অপরিশোধিত সুদ মওকুফ করে দেন। ২০২০ সালের মার্চ থেকে ২০২২ সালের নভেম্বর মাসের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।

আসামি ক্ষমতার অপব্যবহার ও অপরাধজনক বিশ্বাসভঙ্গ করে সরকারের আর্থিক ক্ষতিসাধন করেছেন, যা দণ্ডবিধির ২১৮/৪০৯ ধারা ও ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন। এ কারণে তার বিরুদ্ধে বর্ণিত ধারায় মামলা করা হয়।