ঢাকা ০৫:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচন কে কেন্দ্র করে মারামারি: কারাগারে আইনজীবী

নিজস্ব সংবাদ

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় শাহবাগ পাঁচ আইনজীবীকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) দুপুরে শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালত এই আদেশ দেন।

আইনজীবীরা হলেন, মোহাম্মাদ ওসমান চৌধুরী, কাজী বশির আহাম্মেদ, মো. এনামুল হোসেন সুমন, মো. হাসানুজ্জামান তুষার ও মো. তরিকুল ইসলাম।

তিনদিনের রিমান্ড শেষে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবুল কালাম আইনজীবীদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেছিলেন।

এসময় তাদের আইনজীবীরা জামিন চেয়ে শুনানি করলে আদালত তা না-মঞ্জুর করেন। গত ৯ মার্চ এই পাঁচ আইনজীবীকে তিনদিনের রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

শুক্রবার (৮ মার্চ) মারামারির ঘটনায় আহত সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সাইফুর রহমান সিদ্দিকী (সাইফ) বাদী হয়ে এ মামলা করেন।

মামলায় স্বতন্ত্র সম্পাদক প্রার্থী নাহিদ সুলতানা যুথী ও বিএনপি সমর্থিত সম্পাদক প্রার্থী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলসহ ২০ জন আইনজীবীকে আসামি করে শাহবাগ থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা করেন তিনি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০২:৪৬:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪
৫৮ বার পড়া হয়েছে

সুপ্রিম কোর্ট বারের নির্বাচন কে কেন্দ্র করে মারামারি: কারাগারে আইনজীবী

আপডেট সময় ০২:৪৬:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১২ মার্চ ২০২৪

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় শাহবাগ পাঁচ আইনজীবীকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (১২ মার্চ) দুপুরে শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালত এই আদেশ দেন।

আইনজীবীরা হলেন, মোহাম্মাদ ওসমান চৌধুরী, কাজী বশির আহাম্মেদ, মো. এনামুল হোসেন সুমন, মো. হাসানুজ্জামান তুষার ও মো. তরিকুল ইসলাম।

তিনদিনের রিমান্ড শেষে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক আবুল কালাম আইনজীবীদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেছিলেন।

এসময় তাদের আইনজীবীরা জামিন চেয়ে শুনানি করলে আদালত তা না-মঞ্জুর করেন। গত ৯ মার্চ এই পাঁচ আইনজীবীকে তিনদিনের রিমান্ডে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

শুক্রবার (৮ মার্চ) মারামারির ঘটনায় আহত সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সাইফুর রহমান সিদ্দিকী (সাইফ) বাদী হয়ে এ মামলা করেন।

মামলায় স্বতন্ত্র সম্পাদক প্রার্থী নাহিদ সুলতানা যুথী ও বিএনপি সমর্থিত সম্পাদক প্রার্থী ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজলসহ ২০ জন আইনজীবীকে আসামি করে শাহবাগ থানায় হত্যাচেষ্টা মামলা করেন তিনি।