ঢাকা ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কথা শুনে বুক কেঁপে উঠেছিল আমার: ডাঃ এনাম

আনোয়ার সুলতান, সাভার

 

নির্বাচনের আগে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামের কথা শুনে বুক কেঁপে উঠেছিল। সাইফুল ইসলাম নির্বাচনে অংশ নিলে নির্বাচন কঠিন হবে বলেও তখনই বুঝতে পেরেছিলাম। নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সাইফুল ইসলামকে সংবর্ধনা দিতে গিয়ে এসব কথা তুলে ধরেন ঢাকা-১৯ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমান এনাম।

 

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অডিটোরিয়ামে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যকে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডাঃ এনামুর রহমান।

ডাঃ এনাম বলেন, উনি যখন ঘোষনা দিয়েছেন নির্বাচন করবেন তখন আমার একাদশ জাতীয় নির্বাচনের কথা মনে পড়ে গেল। তখন আমি আমার নির্বাচনের পুরো দায়িত্বটাই দিয়েছিলাম সাইফুলকে। সে অত্যন্ত সুন্দর ভাবে নির্বাচনটা পরিচালনা করেছে। সে যখন ঘোষণা দিয়েছে নির্বাচন করবে, তখন আমার একটু কেঁপে উঠছে বুকের ভেতরে। সে যেহেতু ইলেকশনের ওস্তাদ তার সাথে পারাটা আমার কঠিন হবে, এবং সত্যিই কঠিন হয়েছে। তাঁর মেধা, তাঁর সাংগঠনিক ক্ষমতা-দক্ষতা, পরিশ্রম আমার চেয়ে বেশি বলে সে আজকে বিজয়ী হয়ে আসছে। এবং বিজয়ী হওয়ার সাথে সাথে ফল ঘোষণা হওয়ার সাথেই আমি স্বাগত জানিয়েছি। সেও রাত ১ টা ২০ মিনিটে আমার বাসায় এসেছে, আমার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি জয়লাভ করার পর একটা মানুষই সংবর্ধনার আয়োজন করেছিল, সে হচ্ছে আজকের মাননীয় সংসদ সদস্য সাইফুল ইসলাম। সে তাঁর এলাকা ডেন্ডাবরে বিরাট আকারে আমার সংবর্ধনার আয়োজন করেছিল। সেদিন বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী মমতাজ বেগমকে দাওয়াত করেছিলেন। উনি আমার উদ্দেশ্যে গান গেয়েছিলেন। আমরা আজকে মমতাজ বেগমকে আনতে পারিনি। কিন্তু আমার অতিথিদের জন্য একটা জমকালো সাংস্কৃতিক আয়োজন করা হয়েছে। আমার বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের ছাত্র-ছাত্রীরা আজকে পারফর্ম করবেন।

এসময় নবনির্বাচিত মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এমপির সাথে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, এনাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা মো আমিনুল হক খান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়ে জয়লাভ করেছিলেন ডাঃ এনামুর রহমান। সদ্য বিদায়ী মন্ত্রীসভায় তিনি পালন করেছিলেন দূর্যোগ ব্যবস্থাপন ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব। তিনি বর্তমানে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে আছেন। আর নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ডাঃ এনাম নৌকা প্রতীক পেলেও ট্রাক মার্কা নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তাঁর প্রতিদ্বন্দিতা করে জয়লাভ করেছেন সাইফুল ইসলাম।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০৭:৩৬:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪
৯৯ বার পড়া হয়েছে

স্বতন্ত্র প্রার্থীর কথা শুনে বুক কেঁপে উঠেছিল আমার: ডাঃ এনাম

আপডেট সময় ০৭:৩৬:০৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৪

 

নির্বাচনের আগে স্বতন্ত্র প্রার্থী মুহাম্মদ সাইফুল ইসলামের কথা শুনে বুক কেঁপে উঠেছিল। সাইফুল ইসলাম নির্বাচনে অংশ নিলে নির্বাচন কঠিন হবে বলেও তখনই বুঝতে পেরেছিলাম। নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য সাইফুল ইসলামকে সংবর্ধনা দিতে গিয়ে এসব কথা তুলে ধরেন ঢাকা-১৯ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডাঃ এনামুর রহমান এনাম।

 

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অডিটোরিয়ামে নবনির্বাচিত সংসদ সদস্যকে সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়। এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চেয়ারম্যান ডাঃ এনামুর রহমান।

ডাঃ এনাম বলেন, উনি যখন ঘোষনা দিয়েছেন নির্বাচন করবেন তখন আমার একাদশ জাতীয় নির্বাচনের কথা মনে পড়ে গেল। তখন আমি আমার নির্বাচনের পুরো দায়িত্বটাই দিয়েছিলাম সাইফুলকে। সে অত্যন্ত সুন্দর ভাবে নির্বাচনটা পরিচালনা করেছে। সে যখন ঘোষণা দিয়েছে নির্বাচন করবে, তখন আমার একটু কেঁপে উঠছে বুকের ভেতরে। সে যেহেতু ইলেকশনের ওস্তাদ তার সাথে পারাটা আমার কঠিন হবে, এবং সত্যিই কঠিন হয়েছে। তাঁর মেধা, তাঁর সাংগঠনিক ক্ষমতা-দক্ষতা, পরিশ্রম আমার চেয়ে বেশি বলে সে আজকে বিজয়ী হয়ে আসছে। এবং বিজয়ী হওয়ার সাথে সাথে ফল ঘোষণা হওয়ার সাথেই আমি স্বাগত জানিয়েছি। সেও রাত ১ টা ২০ মিনিটে আমার বাসায় এসেছে, আমার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আমি জয়লাভ করার পর একটা মানুষই সংবর্ধনার আয়োজন করেছিল, সে হচ্ছে আজকের মাননীয় সংসদ সদস্য সাইফুল ইসলাম। সে তাঁর এলাকা ডেন্ডাবরে বিরাট আকারে আমার সংবর্ধনার আয়োজন করেছিল। সেদিন বিশিষ্ট সংগীত শিল্পী মমতাজ বেগমকে দাওয়াত করেছিলেন। উনি আমার উদ্দেশ্যে গান গেয়েছিলেন। আমরা আজকে মমতাজ বেগমকে আনতে পারিনি। কিন্তু আমার অতিথিদের জন্য একটা জমকালো সাংস্কৃতিক আয়োজন করা হয়েছে। আমার বাংলাদেশ, ভারত ও নেপালের ছাত্র-ছাত্রীরা আজকে পারফর্ম করবেন।

এসময় নবনির্বাচিত মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এমপির সাথে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাভার উপজেলা চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, এনাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা মো আমিনুল হক খান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত দশম ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক পেয়ে জয়লাভ করেছিলেন ডাঃ এনামুর রহমান। সদ্য বিদায়ী মন্ত্রীসভায় তিনি পালন করেছিলেন দূর্যোগ ব্যবস্থাপন ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব। তিনি বর্তমানে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি হিসেবে আছেন। আর নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম আশুলিয়া থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ডাঃ এনাম নৌকা প্রতীক পেলেও ট্রাক মার্কা নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে তাঁর প্রতিদ্বন্দিতা করে জয়লাভ করেছেন সাইফুল ইসলাম।