ঢাকা ০৬:১৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১০ মিনিটেই শেষ হয়ে গেলো ট্রেনের আগাম টিকেট

নিজস্ব সংবাদ

মঙ্গলবার বিক্রি হচ্ছে ৫ এপ্রিলের টিকেট; ওই দিন শুক্রবার হওয়ায় টিকেট কেনার চাপ অনেক বেশি, বলছে রেল কর্তৃপক্ষ।

 

ঈদের সময় যত ঘনিয়ে আসছে, রেলের আগাম টিকেট কেনার চাপও তত বাড়ছে।

এবারের রোজার ঈদ উপলক্ষে আগাম টিকেট বিক্রির প্রথম দুদিনের চেয়ে তৃতীয় দিন মঙ্গলবার দেখা গেছে ব্যাপক চাপ; সকাল ৮টায় টিকেট বিক্রির প্ল্যাটফর্ম সহজ ডটকমে টিকেট উন্মুক্ত করে দেওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যে সব বিক্রি হয়ে যায়।

কমলাপুর স্টেশনের ব্যবস্থাপক মো. মাসুদ সারওয়ার মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ঈদ ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে টিকেটের চাহিদাও বেড়েছে।

“আজ (মঙ্গলবার) টিকেটের চাহিদা ব্যাপক বেড়েছে। ৫ তারিখ শুক্রবার হওয়ায় টিকেটের চাহিদা বেশি। এই সময় থেকেই মানুষ বাড়ি যাওয়া শুরু করবেন। এজন্য টিকেটের চাহিদা গত দুদিনের চেয়ে বেড়েছে।

এদিন সকালে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন রুটের ট্রেনের টিকেট; দুপুর ২টা দেওয়া হবে পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রুটের টিকেট।

আগামী ১১ এপ্রিল ঈদ হবে ধরে নিয়ে এবারের ঈদযাত্রার সূচি সাজিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। সে অনুযায়ী রোববার ও সোমবার বিক্রি হয় ৩ ও ৪ এপ্রিলের টিকেট। টিকেট বিক্রি চলবে ৩০ মার্চ পর্যন্ত, সেদিন বিক্রি হবে ৯ এপ্রিলের টিকেট। আগের বারের মত এবারো শতভাগ টিকেট বিক্রি হচ্ছে অনলাইনে।

মঙ্গলবার দেওয়া হচ্ছে আগামী ৫ এপ্রিলের টিকেট। বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েসসাইট পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, এদিন সকাল ৮টা ১০ মিনিটে রাজশাহীগামী সিল্কসিটি, পদ্মা, ধূমকেতু, বনলতা এবং মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের কোনো টিকেট নেই। ৮টায় টিকেট বিক্রি শুরুর আগেও সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনে ২৮৮টি, মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের ৭০টি, পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনের ৬৫৮টি, ধূমকেতুর ৩৫৩টি ও বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ৬৩৬টি টিকেট ছিল।

বিক্রি শুরুর ৩ মিনিটের মধ্যে রংপুর এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের সব টিকেট বিক্রি হয়ে যায়। বেলা সাড়ে ৮টার দিকে কিছু ট্রেনের টিকেট ‘অ্যাভেইলেবল’ দেখালেও কিনতে গিয়ে দেখা যায় ওই টিকেটগুলোও বিক্রি হয়ে গেছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০২:০১:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪
৩১ বার পড়া হয়েছে

১০ মিনিটেই শেষ হয়ে গেলো ট্রেনের আগাম টিকেট

আপডেট সময় ০২:০১:০৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৬ মার্চ ২০২৪

মঙ্গলবার বিক্রি হচ্ছে ৫ এপ্রিলের টিকেট; ওই দিন শুক্রবার হওয়ায় টিকেট কেনার চাপ অনেক বেশি, বলছে রেল কর্তৃপক্ষ।

 

ঈদের সময় যত ঘনিয়ে আসছে, রেলের আগাম টিকেট কেনার চাপও তত বাড়ছে।

এবারের রোজার ঈদ উপলক্ষে আগাম টিকেট বিক্রির প্রথম দুদিনের চেয়ে তৃতীয় দিন মঙ্গলবার দেখা গেছে ব্যাপক চাপ; সকাল ৮টায় টিকেট বিক্রির প্ল্যাটফর্ম সহজ ডটকমে টিকেট উন্মুক্ত করে দেওয়ার ১০ মিনিটের মধ্যে সব বিক্রি হয়ে যায়।

কমলাপুর স্টেশনের ব্যবস্থাপক মো. মাসুদ সারওয়ার মঙ্গলবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ঈদ ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে টিকেটের চাহিদাও বেড়েছে।

“আজ (মঙ্গলবার) টিকেটের চাহিদা ব্যাপক বেড়েছে। ৫ তারিখ শুক্রবার হওয়ায় টিকেটের চাহিদা বেশি। এই সময় থেকেই মানুষ বাড়ি যাওয়া শুরু করবেন। এজন্য টিকেটের চাহিদা গত দুদিনের চেয়ে বেড়েছে।

এদিন সকালে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয় পশ্চিমাঞ্চলের বিভিন্ন রুটের ট্রেনের টিকেট; দুপুর ২টা দেওয়া হবে পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন রুটের টিকেট।

আগামী ১১ এপ্রিল ঈদ হবে ধরে নিয়ে এবারের ঈদযাত্রার সূচি সাজিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। সে অনুযায়ী রোববার ও সোমবার বিক্রি হয় ৩ ও ৪ এপ্রিলের টিকেট। টিকেট বিক্রি চলবে ৩০ মার্চ পর্যন্ত, সেদিন বিক্রি হবে ৯ এপ্রিলের টিকেট। আগের বারের মত এবারো শতভাগ টিকেট বিক্রি হচ্ছে অনলাইনে।

মঙ্গলবার দেওয়া হচ্ছে আগামী ৫ এপ্রিলের টিকেট। বাংলাদেশ রেলওয়ের ওয়েসসাইট পর্যবেক্ষণ করে দেখা গেছে, এদিন সকাল ৮টা ১০ মিনিটে রাজশাহীগামী সিল্কসিটি, পদ্মা, ধূমকেতু, বনলতা এবং মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের কোনো টিকেট নেই। ৮টায় টিকেট বিক্রি শুরুর আগেও সিল্কসিটি এক্সপ্রেস ট্রেনে ২৮৮টি, মধুমতি এক্সপ্রেস ট্রেনের ৭০টি, পদ্মা এক্সপ্রেস ট্রেনের ৬৫৮টি, ধূমকেতুর ৩৫৩টি ও বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ৬৩৬টি টিকেট ছিল।

বিক্রি শুরুর ৩ মিনিটের মধ্যে রংপুর এক্সপ্রেস, কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস, পঞ্চগড় এক্সপ্রেস ট্রেনের সব টিকেট বিক্রি হয়ে যায়। বেলা সাড়ে ৮টার দিকে কিছু ট্রেনের টিকেট ‘অ্যাভেইলেবল’ দেখালেও কিনতে গিয়ে দেখা যায় ওই টিকেটগুলোও বিক্রি হয়ে গেছে।