ঢাকা ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

১৪ কিলোমিটার সড়কে আলপনা হতে পারে দুর্ঘটনার কারন

নিজস্ব সংবাদ

বাংলা সংস্কৃতিকে বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরার লক্ষ্যে এবং গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা পেতে কিশোরগঞ্জে ১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কে বৈশাখী আলপনা আঁকা হয়েছে। প্রায় দুদিনের বেশি সময় ধরে ৬৫০ জন শিল্পী রং-তুলিতে ফুটিয়ে তুলেছেন এ আলপনা। দেশের দীর্ঘতম এ আলপনা নিয়ে আলোচনা যেমন রয়েছে তেমনি এর বিপক্ষেও কথা বলছেন অনেকে।

বিশেষ করে পরিবেশকর্মী ও বিশেষজ্ঞদের অনেকেই এমন কর্মকান্ডে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তারা বলছেন, কিশোরগঞ্জের মিঠামইন জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে অষ্টগ্রাম জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত ১৪ কিলোমিটার সড়কে আলপনা আঁকায় ঢাকা পড়েছে সড়কের থার্মোপ্লাস্টিক রোড মার্কিং বা পথ নির্দেশক চিহ্ন।

ফলে ওই সড়কে গাড়ি চালাতে চালকদের ঝুঁকির মুখে পড়তে হতে পারে। এ ছাড়া, বৃষ্টির সময় বা পানিতে সড়কটি পিচ্ছিল হতে পারে। এতে দ্রুতগতির গাড়ির চাকা পিছলে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এমনকি কেমিক্যালমিশ্রিত এ রং বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে হাওরের প্রাণবৈচিত্র্য ধ্বংস করতে পারে।

তাদের মতে, চেতনা দেখাতে গিয়ে অলওয়েদার সড়কের নিরাপত্তার বিষয়ে আপস করা হয়েছে। এটি দুই লেনের সড়ক। আলপনা আঁকতে গিয়ে সড়কের মাঝের বিভাজন লেন ঢাকা পড়ে গেছে। সাধারণ পিচের রাস্তায় গাড়িগুলো যেভাবে চলতে পারত, এখন কি এ রঙের ওপর দিয়ে সেভাবে চলতে পারবে— এমন প্রশ্নও রেখেছেন কেউ কেউ।

অন্যদিকে, যোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আলপনার রঙে সড়কের পথ নির্দেশক চিহ্ন ঢাকা পড়ায় গাড়ি চালাতে বিপাকে পড়বেন চালকরা। তারা এ-ও বলছেন, গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের জন্য সড়কের অপারেশনাল সেফটি কম্প্রোমাইজ করা বিজ্ঞানসম্মত হয়নি।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১১:৫৭:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৭২ বার পড়া হয়েছে

১৪ কিলোমিটার সড়কে আলপনা হতে পারে দুর্ঘটনার কারন

আপডেট সময় ১১:৫৭:৫৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪

বাংলা সংস্কৃতিকে বিশ্বমঞ্চে তুলে ধরার লক্ষ্যে এবং গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে জায়গা পেতে কিশোরগঞ্জে ১৪ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কে বৈশাখী আলপনা আঁকা হয়েছে। প্রায় দুদিনের বেশি সময় ধরে ৬৫০ জন শিল্পী রং-তুলিতে ফুটিয়ে তুলেছেন এ আলপনা। দেশের দীর্ঘতম এ আলপনা নিয়ে আলোচনা যেমন রয়েছে তেমনি এর বিপক্ষেও কথা বলছেন অনেকে।

বিশেষ করে পরিবেশকর্মী ও বিশেষজ্ঞদের অনেকেই এমন কর্মকান্ডে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। তারা বলছেন, কিশোরগঞ্জের মিঠামইন জিরো পয়েন্ট এলাকা থেকে অষ্টগ্রাম জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত ১৪ কিলোমিটার সড়কে আলপনা আঁকায় ঢাকা পড়েছে সড়কের থার্মোপ্লাস্টিক রোড মার্কিং বা পথ নির্দেশক চিহ্ন।

ফলে ওই সড়কে গাড়ি চালাতে চালকদের ঝুঁকির মুখে পড়তে হতে পারে। এ ছাড়া, বৃষ্টির সময় বা পানিতে সড়কটি পিচ্ছিল হতে পারে। এতে দ্রুতগতির গাড়ির চাকা পিছলে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এমনকি কেমিক্যালমিশ্রিত এ রং বৃষ্টির পানিতে ধুয়ে হাওরের প্রাণবৈচিত্র্য ধ্বংস করতে পারে।

তাদের মতে, চেতনা দেখাতে গিয়ে অলওয়েদার সড়কের নিরাপত্তার বিষয়ে আপস করা হয়েছে। এটি দুই লেনের সড়ক। আলপনা আঁকতে গিয়ে সড়কের মাঝের বিভাজন লেন ঢাকা পড়ে গেছে। সাধারণ পিচের রাস্তায় গাড়িগুলো যেভাবে চলতে পারত, এখন কি এ রঙের ওপর দিয়ে সেভাবে চলতে পারবে— এমন প্রশ্নও রেখেছেন কেউ কেউ।

অন্যদিকে, যোগাযোগ বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আলপনার রঙে সড়কের পথ নির্দেশক চিহ্ন ঢাকা পড়ায় গাড়ি চালাতে বিপাকে পড়বেন চালকরা। তারা এ-ও বলছেন, গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের জন্য সড়কের অপারেশনাল সেফটি কম্প্রোমাইজ করা বিজ্ঞানসম্মত হয়নি।