ঢাকা ০১:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৩৭ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)

মামুনর রশীদ রাজু, ব্যুরো চিফ (খুলনা)

মাস্টাররোলে কর্মরত চতুর্থ শ্রেণির ৩৭ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। সোমবার (১ এপ্রিল) কেসিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সানজিদা বেগম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে। ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে হাইকোর্টে মামলা করার অভিযোগে চাকরিচ্যুত করা হয় তাদেরকে।

কেসিসি সূত্র জানায়, এসব কর্মচারীরা কেসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে স্প্রেম্যান, পরিচ্ছন্নতা কর্মী, নিরাপত্তা প্রহরী ও গাড়ির চালকসহ বিভিন্ন পদে কর্মরত ছিলেন। চাকরি স্থায়ীকরণে সিটি করপোরেশনের রিসিভ করা বেশ কিছু কাগজপত্র জমা দিয়ে তারা হাইকোর্টে একটি মামলা করেন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ওই কাগজপত্র সিটি করপোরেশন কখনও রিসিভ করেনি। জমা দেয়া কাগজপত্রে সিটি করপোরেশনের যে সিল ও স্বাক্ষর রয়েছে তা ভুয়া। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই কাজের মূল হোতা বাচ্চু শেখসহ ৩৭ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

কেসিসির সচিব সানজিদা বেগম জানান, ৩৭ জন কর্মচারী দীর্ঘদিন ধরে মাস্টাররোলে চতুর্থ শ্রেণির বিভিন্ন পদে কেসিসিতে কর্মরত ছিলেন। কিছুদিন আগে তারা ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে হাইকোর্টে একটি মামলা করেন। বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ার পর সিটি মেয়রের নির্দেশে তাদেরকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ১০:২৯:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪
১৪১ বার পড়া হয়েছে

৩৭ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)

আপডেট সময় ১০:২৯:৩৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

মাস্টাররোলে কর্মরত চতুর্থ শ্রেণির ৩৭ জন কর্মচারীকে চাকরিচ্যুত করেছে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি)। সোমবার (১ এপ্রিল) কেসিসির সচিব (অতিরিক্ত দায়িত্ব) সানজিদা বেগম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে। ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে হাইকোর্টে মামলা করার অভিযোগে চাকরিচ্যুত করা হয় তাদেরকে।

কেসিসি সূত্র জানায়, এসব কর্মচারীরা কেসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগে স্প্রেম্যান, পরিচ্ছন্নতা কর্মী, নিরাপত্তা প্রহরী ও গাড়ির চালকসহ বিভিন্ন পদে কর্মরত ছিলেন। চাকরি স্থায়ীকরণে সিটি করপোরেশনের রিসিভ করা বেশ কিছু কাগজপত্র জমা দিয়ে তারা হাইকোর্টে একটি মামলা করেন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ওই কাগজপত্র সিটি করপোরেশন কখনও রিসিভ করেনি। জমা দেয়া কাগজপত্রে সিটি করপোরেশনের যে সিল ও স্বাক্ষর রয়েছে তা ভুয়া। তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই কাজের মূল হোতা বাচ্চু শেখসহ ৩৭ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।

কেসিসির সচিব সানজিদা বেগম জানান, ৩৭ জন কর্মচারী দীর্ঘদিন ধরে মাস্টাররোলে চতুর্থ শ্রেণির বিভিন্ন পদে কেসিসিতে কর্মরত ছিলেন। কিছুদিন আগে তারা ভুয়া কাগজপত্র দিয়ে হাইকোর্টে একটি মামলা করেন। বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ার পর সিটি মেয়রের নির্দেশে তাদেরকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে।