ঢাকা ০৫:২৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৪৭-নওগাঁ-২ আসনে উপ-নির্বাচনে নৌকা

মাসুদ সরকার, ধামইরহাট (নওগাঁ)
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থগিত থাকা ৪৭, নওগাঁ-২ (ধামইরহাট-পত্নীতলা) আসনে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. শহীদুজ্জামান সরকার জয়ী হয়েছেন। গত সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯ টায় জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. গোলাম মওলা বেসরকারি ভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মো. শহীদুজ্জামান সরকার ১ লাখ ১২ হাজার ৬৯৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী ইন্জিনিয়ার আখতারুল আলম ৬৯ হাজার ৪৮৩ ভোট পেয়ে পরাজয় বরণ করেছেন।
এছাড়াও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী করা জাতীয় পার্টির তোফাজ্জল হোসেন লাঙ্গল প্রতিকে পেয়েছেন ৩ হাজার ৭০৮ ভোট ও ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মেহেদী মাহমুদ রেজা ১ হাজার ৩৮৬ ভোট।
নির্বাচন কমিশন (ইসি)র দেওয়া নিদ্রিষ্ট সময় ও দিন সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতহীন ভাবে একটানা ১২৪টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন চলে। দু’এক জায়গায় ছোট খাট বিচিন্ন ঘটনা ছাড়া বড় ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি বা সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি।
এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪ হাজার ৮৩২জন। এর মধ্যে ধামইরহাট উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৫৭ হাজার ১৫ জন, পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ৭৮ হাজার ৩ শত ১ জন, মহিলা ৭৮ হাজার ৭ শত ১৩ জন এবং হিজরা ১ জন ভোটার রয়েছে । অপর দিকে পত্নীতলা উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৯৯ হাজার ১১৭ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৯ হাজার ২৭১ জন এবং নারী ভোটারের সংখ্যা ৯৯ হাজার ৮৪৬ জন। নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, এ নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৫৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ।
উল্লেখ্য- গত ২৯ ডিসেম্বর এই আসনের ঈগল প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হকের মৃত্যুতে নির্বাচন স্বগিত ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এরপর নতুন করে তপসিল ঘোষনার পর গত ১২ ফেব্রুয়ারী সোমবার এ আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

আপডেট সময় ০১:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
৬৬ বার পড়া হয়েছে

৪৭-নওগাঁ-২ আসনে উপ-নির্বাচনে নৌকা

আপডেট সময় ০১:১৯:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থগিত থাকা ৪৭, নওগাঁ-২ (ধামইরহাট-পত্নীতলা) আসনে উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. শহীদুজ্জামান সরকার জয়ী হয়েছেন। গত সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) রাত ৯ টায় জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক মো. গোলাম মওলা বেসরকারি ভাবে এ ফলাফল ঘোষণা করেন।
নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী মো. শহীদুজ্জামান সরকার ১ লাখ ১২ হাজার ৬৯৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম স্বতন্ত্র প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাক প্রতীকের প্রার্থী ইন্জিনিয়ার আখতারুল আলম ৬৯ হাজার ৪৮৩ ভোট পেয়ে পরাজয় বরণ করেছেন।
এছাড়াও নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী করা জাতীয় পার্টির তোফাজ্জল হোসেন লাঙ্গল প্রতিকে পেয়েছেন ৩ হাজার ৭০৮ ভোট ও ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী মেহেদী মাহমুদ রেজা ১ হাজার ৩৮৬ ভোট।
নির্বাচন কমিশন (ইসি)র দেওয়া নিদ্রিষ্ট সময় ও দিন সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতহীন ভাবে একটানা ১২৪টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহন চলে। দু’এক জায়গায় ছোট খাট বিচিন্ন ঘটনা ছাড়া বড় ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি বা সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি।
এই আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ৪ হাজার ৮৩২জন। এর মধ্যে ধামইরহাট উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৫৭ হাজার ১৫ জন, পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ৭৮ হাজার ৩ শত ১ জন, মহিলা ৭৮ হাজার ৭ শত ১৩ জন এবং হিজরা ১ জন ভোটার রয়েছে । অপর দিকে পত্নীতলা উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১ লাখ ৯৯ হাজার ১১৭ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯৯ হাজার ২৭১ জন এবং নারী ভোটারের সংখ্যা ৯৯ হাজার ৮৪৬ জন। নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, এ নির্বাচনে ভোট পড়েছে ৫৩ দশমিক ৭৭ শতাংশ।
উল্লেখ্য- গত ২৯ ডিসেম্বর এই আসনের ঈগল প্রতিকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হকের মৃত্যুতে নির্বাচন স্বগিত ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এরপর নতুন করে তপসিল ঘোষনার পর গত ১২ ফেব্রুয়ারী সোমবার এ আসনে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।